প্রচ্ছদ

আবরারের দাফন সম্পন্ন

১৯ মার্চ ২০১৯, ১৯:১৬

sylnewsbd.com

নিজস্ব প্রতিবেদক :: রাজধানীর বসুন্ধরা এলাকায় বাসের চাপায় নিহত মেধাবী শিক্ষার্থী আবরারের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) বিকাল ৪টার দিকে বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

এর আগে সকালে ভাটারা এলাকায় রাস্তা পারাপারের সময় আবরার আহমেদ চৌধুরী (২০) নামের ওই ছাত্রকে চাপা দেয় সুপ্রভাত পরিবহনের একটি বাস। ঘটনাস্থলেই নিহত হয় আবরার।

নিহত আববার বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) ছাত্র। তিনি মালিবাগে নিজস্ব বাসায় থাকতেন।

দাফনের আগে দুপুর দেড়টার দিকে মিরপুর সেনানিবাসের মধ্যে বিইউপি এডিবি গ্রেড গ্রাউন্ড মাঠে তার প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। ২৫, এডিবি গ্রেড মসজিদের ইমাম মওলানা তাজুল ইসলাম এতে ইমামতি করেন।

এ সময় আবরার আহমেদের বাবা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আরিফ আহমেদ চৌধুরী, বিইউপির ভিসি মেজর জেনারেল মো. এমদাদ-উল বারী, ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম, আবরার আহমেদের সহপাঠী, বন্ধু-বান্ধব, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও আত্মীয়-স্বজন জানাজায় অংশ নেন।

এদিকে এ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে ১১ দফা দাবিতে বসুন্ধরা আবাসিক গেট এলাকার রাস্তায় আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনকারীরা লিখিতভাবে তাদের দাবিগুলো তুলে ধরেছেন।

তাদের ৮টি দাবি মধ্যে রয়েছে-

১.পরিবহন সেক্টরকে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত করতে হবে এবং প্রতি মাসে বাসচালকের লাইসেন্সসহ সকল প্রয়োজনীয় কাগজপত্র চেক করতে হবে।
২.আটক চালক ও সম্পৃক্ত সকলকে দ্রুত সময়ের মধ্যে সর্বোচ্চ শাস্তির আওতায় আনতে হবে।
৩.আজ থেকে ফিটনেসবিহীন বাস ও লাইসেন্সবিহীন চালককে দ্রুত সময়ে অপসারণ করতে হবে।
৪.ঝুঁকিপূর্ণ ও প্রয়োজনীয় সকল স্থানে আন্ডারপাস, স্পিড ব্রেকার এবং ফুট ওভারব্রিজ নির্মাণ করতে হবে।
৫.চলমান আইনের পরিবর্তন করে সড়ক হত্যার সাথে জড়িত সকলকে সর্বোচ্চ শাস্তির আওতায় আনতে হবে।
৬.দায়িত্ব অবহেলাকারী প্রশাসন ও ট্রাফিক পুলিশকে স্থায়ী অপসারণ করে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
৭.প্রতিযোগিতামূলক গাড়ি চলাচল বন্ধ করে নির্দিষ্ট স্থানে বাসস্টপ এবং যাত্রীছাউনি করার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
৮.ছাত্রদের হাফ পাস (অর্ধেক ভাড়া) অথবা আলাদা বাস সার্ভিস চালু করতে হবে ও অন্যান্য।

সর্বাধিক ক্লিক