প্রচ্ছদ

এই পুকুরটা মাছ চাষ করার জন্য ভাড়া দেওয়া হবে’

১০ অক্টোবর ২০১৮, ২২:৩৮

329

জে.জাহেদ, চট্টগ্রা:ওস্তাদ ব্রেক, সামনে পুকুর। বলছিলেন এস আলম পরিবহনের বাসের হেলপার মজিদ। শহর হতে রির্জাভ বাসটি ইছানগর ডায়মন্ড ফ্যাক্টরীর দিকে যাচ্ছিলেন।

কর্ণফুলীর চরপাথরঘাটা আজিমপাড়া কাচাঁবাজার মোড় ঘুরে বিএফডিসি সড়কে যেতেই হেলপার মুজিবের হাঁকডাক-ওস্তাদ ব্রেক, সামনে পুকুর।

ড্রাইভার দেখলেন খানাখন্দ বড় গর্ত আর দেড় দুই ফুট পানিতে তলিয়ে আছে বিএফডিসি সড়ক। একহাত দন্ডে লাল কাপড় মোড়ানো সর্তক সংকেত ও চোখে পড়ার মতো বসানো। তার উপরে কাঠ দন্ডে একটি সাদা কাগজে সাইনর্বোড সদৃশ কার্ড। তাতে লেখা আছে ‘এই পুকুরটা মাছ চাষ করার জন্য ভাড়া দেওয়া হবে’। কে বা কারা লাগিয়েছে তা জানা যায়নি। তবে কতৃপক্ষের নজর ফেলাতে কাজটি করেছে তাতে সন্দেহ নেই। ফলে বাস থামিয়ে দেখেন বড় গর্ত হয়ে গেছে। ঝুঁিকপুর্ণ বিএফডিসি সড়ক।

পরিনামে কর্ণফুলী উপজেলার চরপাথরঘাটা ইউনিয়নের ইছানগর বিএফডিসি সড়কের জনদুর্ভোগের শিকার এলাকাবাসী। বর্তমানে অর্ধশতাধিক শিল্প প্রতিষ্ঠানের কয়েক শতাধিক মালবাহী ট্রাক চলাচল করে এ সড়ক দিয়ে। এছাড়াও কোষ্টগার্ড, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কয়েক হাজার শিক্ষার্থীসহ, কর্মজীবী মানুষদের চলাচলও রয়েছে এ সড়ক দিয়ে।

স্থানীয় মানুষেরা জনপ্রতিনিধিদের প্রতি ক্ষোভ দেখালেও কাজ হচ্ছেনা। দ্রুত চলাচল উপযোগী করে দেয়ার দাবী জানিয়ে মানববন্ধন ও করেছে কয়েকবার।

সরেজমিনে কর্ণফুলী চরপাথরঘাটা ইছানগর এলাকার বিএফডিসি সড়কটি কয়েক মাস আগে সংস্কার করা হলেও বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানের মালবাহী ট্রাক চলাচল করায় দ্রুত তা নষ্ট হয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়।

বর্তমানে বৃষ্টির পানি জমে গর্ত গুলো আরো বড় আকার ধারণ করেছে। সড়কটির এক অংশে বড় গর্ত তৈরি হয়ে হাঁটু পরিমাণ পানি জমে আছে। আর পানির উপরের চলাচলে সিএনজি ট্যাক্সি ও মালবাহী ট্রাক। এ কারণে সাধারণ মানুষ চলাচলে কাঁদায় কাপড় চোপড় নষ্ট হয়ে যায়। স্থানীয় সিএনজি চালক শফি বলেন, আমরা এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন গাড়ি চালিয়ে রাতে বাড়িতে গেলে ঘুম থেকে আর উঠতে পারি না। সড়কটি দেখার মত এলাকায় যেন কেউ নেই’।

কর্ণফুলী উপজেলার সাবেক ছাত্রনেতা ও ব্যবসায়ী আব্দুল মালেক বলেন, উপজেলার গুরুত্বপুর্ণ এ সড়কে টেকসই কাজ করা জরুরী হয়ে পড়েছে। কেননা সরকার পর্যাপ্ত বাজেট দিলেও বার বার নিম্নমানের কাজ করার ফলে এ অবস্থা হয়েছে। দ্রুত যেন টেকসই সঠিক মানের কাজ করা হয় তেমনটি দাবি জানান তিনি।’

এ ব্যাপারে চরপাথরঘাটা ইউপি চেয়ারম্যান ছাবের আহমদ বলেন, সড়কটি বিষয় নিয়ে সড়ক বিভাগ ও কোষ্টগার্ডের সাথে কথা বলব দ্রুত সংস্কার করার জন্য।

এ ব্যাপারে দোহাজারী সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তা তোফায়েল মিয়া বলেন, বিএফডিসি সড়ক দিয়ে ভারী যানবাহন চলার কারণে সংস্কার করার পরও সেটি দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। তবে আমরা শীঘ্রই সংস্কারের কাজ শুরু করব’। তবে এলাকার জনগণ দ্রুত সময়ে জনভোগান্তি লাঘবে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

0Shares

সর্বাধিক ক্লিক