প্রচ্ছদ

প্রসঙ্গ সাহসী সাংবাদিকতা সিলেটে এখন পার্থদের বড্ড অভাব

০৫ জুলাই ২০১৯, ০১:২৭

sylnewsbd.com

নাজমুল কবীর পাভেল ::: ১৯৯৯ সাল । প্রতিদিনই একটি চমক থাকত প্রথম আলোতে । কাউকে অনুসরন করতেন না সেই সব সংবাদের নায়ক । নিজস্ব স্টাইলে বিভিন্ন সংবাদ তিনি লিখতেন। সংবাদের সব শাখাতে তার লেখা দেখে বোঝা যেত এই তরুন সব বিষয়ে লেখায় পারদর্শী। তার নিজস্ব কিছু ষ্টাইল ছিল। স্পটে গিয়ে নতুন কিছু আইডিয়া নিয়ে তিনি কাজ করতেন। পরের দিন এই সংবাদটি পাঠকদের খুব নাড়া দিত । চমক আর চমক থাকত। আর সংবাদের নেপথ্য‌ কাহিনী সহজে উদ্ধার করতে তার জুড়ি ছিল না । সিলেটের শত শত নিউজ । প্রথম আলোর আলোকিত সিলেটের প্রতিটি পাতা কাজ তিনি করতেন। তিনি নিউজ পাগল একজন সংবাদ কর্মী। তিনি আগে কাজ করতেন , ঢাকায় নিউজ পাঠানোর পর খেতেন । অ‌া‌মি নি‌জের চো‌খে তা দে‌খে‌ছি। খুব সৎ, নীতির সাথে কখনও আপোষ করেননি। টাকার প্রতি কোন কালে তার কোন মোহ ছিল না । তিনি সংবাদ লেখার সময় কোন প্রভাবশালীর রক্ত চুক্ষুকে ভয় করতেন না । সিলেটে সাহসী সাংবাদিকতার বড় অভাব । অাজ তা টের পাই।

সাংবাদিক নেতা হওয়ার চেষ্টা কখনও তার মধ্যে কাজ করেনি । তিনি ঢাকায় চলে যান। সে কা‌হিনী অা‌রো মহান, তার উদারতার। ঢাকায় প্রথমে মানবজমিন , পরে সাপ্তাহিক ২০০০ , অার তারও প‌রে ২০০৯ সা‌লে কা‌লের ক‌ণ্ঠে যোগ দেন। এখ‌নো তি‌নি কালের কন্ঠে কাজ কর‌ছেন। তি‌নি সেখা‌নে সিনিয়র রিপোটার । প্রচারবিমুখ এই সংবাদ কমী হলেন পার্থ সারথি দাস ।

পার্থ কখনও ক্ষমতার অপব্যবহার করেননি । তেলে মাখায় কখনও তেল দেননি । কখনও কোন টাকাওয়ালার পা-চাটেননি । এখন পা-চাটার প্রতিযোগিতা চলছে ।

আজ সিলেটে পার্থ দার অভাব অনুভব করছি আমরা । তার মত সংবাদ কর্মী আর সিলেটে সৃষ্টি হয়নি ।
তবে আমি এখন কিছুটা আশাবাদী । গত ২৮ জুন শুক্রবার বিকেলে সিলেট প্রেসক্লাব মিলনায়তনে স্বাস্থ্য সাংবাদিকতা বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালার তি‌নি এ‌সে‌ছি‌লেন প্র‌তি‌বেদন লেখার কৌশল শেখা‌তে।
ইউএসএইড, বাংলাদেশ মানবধিকার সাংবাদিক ফোরাম (বিএমএসএস) ও উজ্জীবন-এর যৌথ উদ্যোগে দিনব্যাপী এ কর্মশালায় সিলেটে কর্মরত ২৫ জন গণমাধ্যমকর্মী অংশ নেন।
দৈনিক কালের কণ্ঠের সিনিয়র রিপোর্টার পার্থ সারথি দাস হাতে কলমে সাংবাদিকদের প্রশিক্ষন দেন । এছাড়া তিনি সুনামগঞ্জ ও শ্রীমঙ্গলের ৫০ জন সাংবাদিকদের সাংবাদিকতার প্রশিক্ষন দেন । এই সব সাংবাদিকদের মধ্য থেকে আর পার্থ সারখি দাস বেরিয়ে আসবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

Image may contain: 2 people, including Partha Sharothi Das, people sitting and indoor

Image may contain: 5 people, people sitting, living room, table and indoor
Image may contain: 4 people
Image may contain: 6 people, including Partha Sharothi Das, people smiling, people sitting
Image may contain: 3 people, people sitting and indoor
Image may contain: 3 people, people sitting and indoor
Image may contain: 6 people, including Partha Sharothi Das, people standing and indoor

সর্বাধিক ক্লিক