প্রচ্ছদ

বই প্রকাশের পর নিখোঁজ বিশ্বনাথের আজম আলী

১২ জুলাই ২০১৯, ০১:২৯

sylnewsbd.com

 বিশ্বনাথ প্রতিনিধি : ধর্মকে কটাক্ষ করে বই প্রকাশ করা বিশ্বনাথের আজম আলী পালিয়ে গেছেন। এলাকাবাসীর বিক্ষোভের মুখে অনেকদিন ধরে এলাকায় পাওয়া যাচ্ছেনা। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, গ্রামে থাকা আজম আলীর স্বজনরাও এ বিষয়ে মুখ খুলছেননা কারো সাথে। জানা গেছে ইসলাম ধর্মকে ব্যঙ্গ করে কিছুদিন আগে বই প্রকাশ করেন বিশ্বনাথের আজম আলী। তিনি বিশ্বনাথের মরহুম হাজী শাহ মস্তকিন আলীর ছেলে। বাড়ী উপজেলার টেংরা গ্রামে। বই প্রকাশের পর থেকে দফায় দফায় গ্রামবাসীর বৈঠক হয়েছে। বৈঠক থেকে বিকৃত লেখার দায়ে আজম আলীকে গ্রেফতারের মাধ্যমে এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার দাবি জানিয়েছেন গ্রামবাসী। প্রকাশিত বইটির নাম ‘মনের খোরাক’। বইটির প্রকাশক হিসেবে দক্ষিণ সুরমার জালালপুর কাদিপুরের আতিকুর রহমানের নাম রয়েছে। ১৭৬ পৃষ্টা সম্বলিত এই বইটিতে শুধু মুসলমান ধর্ম নয়, হিন্দু ধর্ম বিষয়েও নানা অযৌক্তিক, অবিশ্বাসযোগ্য এবং বিতর্কধর্মী লেখা প্রকাশ পেয়েছে। এনিয়ে বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী কয়েক দফায় আজম আলীর সাথে সংঘর্ষে লিপ্ত হতে চাইলে আজম আলীর পরিবারের মধ্যস্থতায় বিষয়টি শেষ হয়। অভিযুক্ত গ্রামবাসীর দাবি-ধর্মকে আঘাত করে কুরুচিপূর্ণ লেখা প্রকাশের মধ্য দিয়ে গ্রামের পাশাপাশি সারাদেশে সংঘাত ছড়িয়ে পড়বে। সুতরাং অপ্রীতিকর কোনো ঘটনা ঘটার আগেই প্রকাশিত বইটি বাজেয়াপ্ত করতে হবে। অন্যতায় গ্রামের সকল মানুষ মিলে আইনের আশ্রয় নিতে বাধ্য হবেন। বিশ্বনাথ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বলেন, গ্রামবাসির অভিযোগের পর থেকে আজম আলীকে এলাকায় খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা। গ্রামে থাকা স্বজনরাও এ বিষয়ে মুখ খুলতে চাইছেননা। আজম আলীকে খুঁজে পেলে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে বলে জানান তিনি।

সর্বাধিক ক্লিক