প্রচ্ছদ

বঞ্চিত লিটনই আজকের নায়ক!

১৮ জুন ২০১৯, ০১:৫৫

sylnewsbd.com
লিটন দাস। ছবি: সংগৃহিত।

খেলা ডেস্ক :: ৩৮তম ওভারটি করতে এসে মাথায় হাত দিয়ে বসে পড়ার দশা শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের। ঘণ্টায় ১৪০ কিলোমিটার গতিতে বল করছেন। আর লিটন দাস কিনা তাঁকে যেখানে ইচ্ছা সেখানে আছড়ে ফেলছেন! প্রথম তিন বলেই তিন ছক্কা হাঁকালেন লিটন দাস! বিশ্বকাপে বাংলাদেশের ছক্কার প্রথম হ্যাটট্রিক।

ক্যারিবীয় পেসার শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের একেকটি বলকে যেই দোর্দণ্ড প্রতাপে সীমানার ওপারে আছড়ে ফেলছিলেন, দেখে বোঝার উপায় ছিল না নিজের প্রথম বিশ্বকাপ ম্যাচ খেলতে নেমেছেন লিটন। অবশ্য যে পরিস্থিতিতে নেমেছিলেন আর যেভাবে সে চাপ সামলেছেন তাতে অমন কিছু দেখানো খুব করেই সম্ভব ছিল তাঁর পক্ষে। দলীয় ১৩৩ রানে সবাইকে হতাশ করে দিয়ে লেগ স্ট্যাম্পের অনেক বাইরের একটি বলে খোঁচা মেরে মাত্র ১ রানে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন মুশফিকুর রহিম। সবাই ধরে নিয়েছিল ম্যাচটা হাত ফসকে যাচ্ছে। এক প্রান্ত আগলে একা সাকিব আর কত লড়বেন!

ঠিক তেমন একটা শঙ্কার দোলাচলে থাকা মুহূর্তেই ক্রিজে এসেছেন লিটন দাস। সাকিবকে সঙ্গ দেওয়াটাই তখন তাঁর মূল কাজ। প্রথম ২৮ বল থেকে ২৩ রান নিয়ে ধীরস্থির শুরু করেছেন। সাময়িক অস্বস্তি কাটিয়ে নেওয়ার দায়িত্বটি সুচারুভাবে পালন করেছিলেন। ৩২তম ওভারে পার্ট টাইম স্পিনার ক্রিস গেইলকে দুবার সীমানা ছাড়া করে খোলস মুক্ত হলেন লিটন। চারটি চার এবং এক ছয়ের সাহায্যে ৪৩ বলে বিশ্বকাপে নিজের প্রথম ফিফটিটা পেলেন।

এরপর আর পেছন ফিরে তাকাননি লিটন। ফিফটি করার পর রান তোলার গতি বাড়িয়েছেন দুর্দান্তভাবে। শেষতক ৬৯ বলে ৯৪ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে একদিনের ক্রিকেটে বাংলাদেশের তাড়া করার রেকর্ডের সাক্ষী হয়ে তবেই মাঠ ছেড়েছেন। চতুর্থ উইকেটে ১৮৯ রানের বিশাল জুটি গড়েছেন। সাকিবের মতো ফর্মে থাকা ব্যাটসম্যানের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রান তোলার গতিতে তাঁকে হারিয়ে দিয়েছেন!

ওপেনিং বা তিন নম্বর পজিশনে খেলতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো পাঁচে নেমে এমন দুর্দান্ত ইনিংস খেলবেন, কে ভাবতে পেরেছিলেন! ম্যাচের আগে দলে সুযোগ পাওয়া নিয়েই তো কত ঘটনা ঘটল। আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে মাত্র একটি ম্যাচে সুযোগ পেয়েছিলেন, তাও স্বাগতিকদের বিপক্ষে আনুষ্ঠানিকতা রক্ষার ম্যাচে। সেই ম্যাচে ওপেনিংয়ে নেমে ৬৭ বলে ৭৬ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে দলের জয়ে অবদান রেখেছিলেন। তবু বিশ্বকাপে সুযোগ মিলছিল না।

লিটনের সহজাত পজিশন ওপেনিংয়ে তামিম-সৌম্য নিশ্চিত। তিন নম্বরে সাকিব রানের মাঝেই আছেন, আজও খেললেন এক অতিমানবীয় ইনিংস। শেষে অফ ফর্মে থাকা মিঠুনের পরিবর্তে পাঁচ নম্বর পজিশনে আজ সুযোগ পেলেন। আর একটি সুযোগের অপেক্ষায় যে বুভুক্ষুর মতো তাকিয়ে ছিলেন, সেটা আজ ৯৪ রানের এক ইনিংস খেলে বুঝিয়ে দিলেন।

৩২২ রানের পাহাড়সম লক্ষ্য দেখে ইনিংসের শুরুর আগে সমর্থকদের ত্রাহি অবস্থা। তারাই কিনা ম্যাচ শেষে খানিকটা আক্ষেপের সুরে বলছেন; আহা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ যদি আর কিছু রান বেশি করত, হয়তো সেঞ্চুরি করেই নিজের বিশ্বকাপ অভিষেক উদ্‌যাপন করতেন লিটন দাস!

সর্বাধিক ক্লিক