প্রচ্ছদ

মুমিনদের নম্র আচরণের তাগিদ দিয়েছে ইসলাম

০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০১:০০

329

মুহম্মাদ জিয়াউদ্দিন :: আল্লাহ নিজে নম্র। তিনি চান বান্দাও তার স্রষ্টার গুণে গুণান্বিত হোক। নিজেরা একে অন্যের প্রতি বিনম্র আচরণ করুক। তাদের মধ্যে পারস্পরিক আস্থা ও সৌহার্দ্যরে পরিবেশ গড়ে উঠুক।

আল কোরআনে মুমিনদের আচার-ব্যবহার কেমন হওয়া উচিত তা উল্লেখ করা হয়েছে ‘আর তোমরা সবাই আল্লাহর বন্দনা কর। তার সঙ্গে কাউকে শরিক করো না। মাতা -পিতার সঙ্গে সদ্ব্যবহার কর। আত্মীয়, এতিম ও মিসকিনদের সঙ্গে সদাচরণ কর। আত্মীয়, প্রতিবেশী, নিকটবর্তীজন, পার্শ্ববর্তী লোকজন, সহচর, মুসাফির ও তোমার অধীন দাস-দাসীসহ সবার প্রতি ইহসান ও ভালো ব্যবহার কর। নিশ্চিতভাবে জেনে রাখো, আল্লাহ এমন ব্যক্তিকে পছন্দ করেন না, যে অহংকারী ও গর্বকারী।’ সূরা আন নিসা, আয়াত ৩৬। এ বিষয়ে আল্লাহ আরও ইরশাদ করেন, ‘যদি তাদের থেকে (অর্থাৎ অভাবী, আত্মীয়স্বজন, মিসকিন ও মুসাফির) তোমাকে মুখ ফিরিয়ে নিতে হয় এজন্য যে, এখন তুমি আল্লাহর প্রত্যাশিত রহমতের সন্ধান করে ফিরছ (অর্থাৎ তোমার সামর্থ্য নেই), তাহলে তাদের সঙ্গে মধুর ও নরম ব্যবহার কর।’ সূরা বনি ইসরাইল, আয়াত ২৮। এ বিষয়ে আরেক আয়াতে বলা হয়েছে, ‘রহমানের বান্দা তারাই যারা পৃথিবীর বুকে নম্রভাবে চলাফেরা করে এবং মূর্খরা তাদের সঙ্গে কথা বলতে থাকলে বলে দেয়, তোমাদের সালাম। তারা নিজেদের রবের সামনে সিজদায় অবনত হয়ে ও দাঁড়িয়ে রাত কাটিয়ে দেয়।’ সূরা আল ফুরকান, আয়াত ৬৩-৬৪। রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামও নম্র আচরণের প্রতি মুমিনদের উৎসাহিত করেছেন। হজরত আয়েশা (রা.) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘আল্লাহ স্বয়ং নম্র, তাই তিনি নম্রতাকেই ভালোবাসেন। তিনি কঠোরতার জন্য যা দান করেন না তা নম্রতার জন্য দান করেন। নম্রতা ছাড়া অন্য কিছুতেই তা দান করেন না।’ মুসলিম। যে মানুষের মধ্যে নম্রতা নেই সে প্রকৃত অর্থে আল্লাহ-প্রদত্ত রহমত বা কল্যাণ থেকে বঞ্চিত। হজরত জাবির (রা.) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি নম্রতা থেকে বঞ্চিত সে প্রকৃত কল্যাণ থেকেই বঞ্চিত।’ মুসলিম। রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘নম্রতা যে কোনো বিষয়কে সৌন্দর্যমন্ডিত করে। আর কারও কাছ থেকে নম্রতা বিদূরিত করা হলে তা তাকে কলুষিত করে ছাড়ে।’ মুসলিম। আল্লাহ নম্র বান্দাদের ভালোবাসেন। নম্রতা অবলম্বনকারীর মর্যাদা আল্লাহ দিন দিন বাড়িয়ে দেন। রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ‘যে ব্যক্তি একমাত্র আল্লাহরই সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে বিনয় ও নম্রতার নীতি অবলম্বন করে, আল্লাহ তার মর্যাদা বাড়িয়ে দেন।’ মুসলিম।
আল্লাহ আমাদের সবাইকে পরস্পরের সঙ্গে নম্র আচরণের তাওফিক দান করুন।

লেখক : ইসলামবিষয়ক গবেষক
বিডি প্রতিদিন

সর্বাধিক ক্লিক