প্রচ্ছদ

সিলেটে আ.লীগের মনোনয়ন চান জগলু চৌধুরী ও মাহফুজুর রহমান

০৯ নভেম্বর ২০১৮, ১৯:৩২

329

সিলনিউজ ডেস্ক :: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেটে নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চান এডভোকেট মাহফুজুর রহমান ও জগলু চৌধুরী। শুক্রবার নগরীর একটি অভিজাত রেস্তোরাঁয় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন করে তাঁরা তাদের প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এডভোকেট মাহফুজুর রহমান মাহফুজ সিলেট-৪ এবং জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক জগলু চৌধুরী সিলেট-২ আসন থেকে দলীয় প্রতীকে লড়তে চান। তবে দু’প্রার্থীই দলীয় হাইকমান্ড থেকে যাকেই মনোনয়ন দেয়া হবে, দলের স্বার্থে তার পক্ষে কাজ করে যাওয়ার কথাও বলেছেন।

লিখিত বক্তব্যে মাহফুজুর রহমান মাহফুজ বলেন, ‘১৯৮৫ সাল হতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের একজন কর্মী হয়ে শিক্ষা শান্তি ও প্রগতির পতাকাবাহী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কর্মী হয়ে স্কুল জীবন থেকেই আমার রাজনৈতিক জীবনের শুরু। আশির দশকেই ছাত্র সমাজের দাবি ও অধিকার আদায়ে আমি সচেষ্ট ছিলাম এবং সে সময়ে ছাত্রলীগের সকল নেতাকর্মীদের নিয়ে ক্যাম্পাসের পবিত্রতা রক্ষায় অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করি। দীর্ঘ ছাত্র রাজনীতিতে কখনো কোন অপশক্তির সাথে আপোষ করিনি। কোম্পানীগঞ্জের সকল স্তরের মানুষের সাথে আমি ছাত্রজীবন হতেই সুখে-দুঃখে থাকার চেষ্টা করেছি। জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরিবর্তনে বিশ্বাসী। তাই আমার নির্বাচনী এলাকার বর্তমান সাংসদ মহোদয়ের প্রতি সম্মান রেখে তরুণদের দাবি নিয়ে আমি নির্বাচন করতে চাই।’

সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জগলু চৌধুরী লিখিত বক্তব্যে বলেন, ‘পারিবারিকভাবে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মতাদর্শে উদ্ধুদ্ব হয়ে কৈশোরেই ছাত্রলীগে জড়িত হবার মধ্যে দিয়ে রাজনীতিতে আমার হাতেখড়ি। ২০০২ সালে আওয়ামী লীগের কঠিনতম সময়ে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত হই। ২০১১ সালে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের নতুন কমিটিতে আমাকে উপদপ্তর সম্পাদক পদে মনোনিত করেন জননেত্রী শেখ হাসিনা। আমি দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলছি, আমার রাজনৈতিক জীবনে কখনো অস্ত্রনির্ভর অসুস্থ রাজনীতি অথবা উপদলীয় কোন্দল সর্বস্ব বিভাজনের রাজনীতিতে জড়িত ছিলাম না। ছাত্রজীবন থেকে নানা সাংগঠনিক কর্মকান্ডে নিজেকে জড়িত রাখার পাশাপাশি আমি প্রতিনিয়ত আমার নিজ নির্বাচনী এলাকার প্রতিটি জনপদে গণমানুষের সাথে সম্পৃক্ত রয়েছি। আমার নির্বাচনী এলাকা একটি ঐতিহ্যবাহী নির্বাচনী এলাকা। এ আসন থেকে মুক্তিযুদ্ধের প্রধান সেনাপতি জেনারেল এমএজি ওসমানী, দেওয়ান তৈমুর রাজাসহ অনেক গুণীজন নির্বাচিত হয়েছেন। এলাকার সাথে সম্পৃক্ত থেকে দেখেছি আমার নির্বাচনী এলাকায় এখনো অনেক উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন হওয়া আবশ্যক। তাই আমার নির্বাচনী এলাকার জনসাধারণের নানামুখী সমস্যা সম্ভাবনা মাথায় রেখে জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নকে আরো তরান্বিত করতে দলীয় মনোনয়নে প্রার্থী হতে চাই।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- এডভোকেট নূরেআলম সিরাজী, শাবি ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও হবিগঞ্জ-২ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মাসুম বিল্লাহ, সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি এম জামাল উদ্দিনসহ আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠন সমূহের নেতৃবৃন্দ।

0Shares

সর্বাধিক ক্লিক