প্রচ্ছদ

সিলেটে বসতগৃহে হামলা-ভাংচুর ও আগুন : থানায় মামলা

১৭ নভেম্বর ২০১৮, ১৮:৪২

329

সিলনিউজ ডেস্ক : : সিলেটের জালালাবাদ থানাধীন বাবুরগাঁও গ্রামে বসতবাসিতে হামলা-ভাংচুর ও আগুনে দেয়ার ঘটনায় জালালাবাদ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ইসমাইল আলী। গত ১৫ নভেম্বর বৃহস্পতিবার ১২জনকে নামীয় ও ১০/১৫ জন অজ্ঞাতনামা আসামী করে এ মামলা দায়ের করেন। যার নং-১৩, তাং-১৫.১১.২০১৮।

মামলার আসামীরা হলেন, বাবুরগাঁও গ্রামের ওয়াব আলীর পুত্র খইরুল ইসলাম উরফে লাট্টন, দিলোয়ার, মইনুল ইসলাম, আমিনুল ইসলাম, মৃত আজিদ মিয়ার পুত্র মইবুর ইসলাম, গোলাম নুর উরফে মাদা, মুজিবুর রহমান, মৃত হাবিবুর রহমানের পুত্র মঞ্জুর আহমদ, মুজিবুর রহমানের পুত্র মোস্তাকিম, আলী রব্বানীর পুত্র জাফরুল, খোকন, নুরুল মিয়ার পুত্র দুলন।

মামলার এজাহারে তিনি উল্লেখ করেন, গত ৮ নভেম্বর দুপুরে পূর্ব শত্র“তার জের ধরে আসামীরা বাবুরগাও গ্রামের মৃত মবশ্বির আলীর পুত্র ইসমাইল আলীর বাড়িতে হামলা করে। দেশীয় অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে বসত গৃহে ভাংচুর করে। ইসমাইল আলী তাদের প্রতিবাদ করলে হামলাকারীরা তার উপর ঝাপিয়ে পড়ে। ইসমাইল আলীকে এ এলোপাতাড়ী পিটিয়ে ফুলা জখম করে। এসময় তাকে বাঁচাতে তার পুত্রবধূ লুৎফা বেগম এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা তাকেও এলোপাতাড়ী মারপিঠ করে ও শ্লীলতাহানি ঘটায়। এসময় হামলাকারী খয়রুল ও মইনুল ইসমাইল আলীর ঘরে ওয়াড্রফ থেকে ৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, নগদ দেড় লক্ষ টাকা ও ঘরের প্রায় ৫০ হাজার টাকার অন্যান্য মালামাল ছিনিয়ে নিয়ে যায়। ইসমাইল ও তার পুত্রবধূ লুৎফার চিৎকারে আশপাশে লোকজন দৌড়ে এলে ক্ষিপ্ত হয় হামলাকারীরা। মামলার প্রধান আসামী খয়রুল ইসলামের নির্দেশে অন্যান্য আসামীরা ইসমাইল আলীর ঘরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুন চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে নিয়ন্ত্রণের বাহিরে চলে যায়। উক্ত আগুনে ঘরের ৩টি এলইডি টিভি, ২টি ফ্রিজ, ৪টি ফ্যান, দলিলপত্র, পাসপোর্ট, আইডি কার্ড, ওয়ার্ডোব, শো-কেস, চেয়ার, টেবিল, ফার্নিচার সহ যাবতীয় মামলায় পুড়ে প্রায় ১৫ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হয়। এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার পেতে ইসমাইল জালালাবাদ থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন জালালাবাদ থানার ওসি হারুন। তিনি বলেন, আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

1 বার পঠিত
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    8
    Shares

সর্বাধিক ক্লিক