অতিরিক্ত ভাড়া নিলে রেজিস্ট্রেশন-পারমিট বাতিলের নির্দেশ

প্রকাশিত: ৭:০৯ অপরাহ্ণ, জুন ১০, ২০২০

অতিরিক্ত ভাড়া নিলে রেজিস্ট্রেশন-পারমিট বাতিলের নির্দেশ

অনলাইন ডেস্ক :; করোনাভাইরাস সংকটের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি না মানলে এবং অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করলে গণপরিবহনের রেজিস্ট্রেশন ও রুট পারমিট বাতিলের নির্দেশ দিয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়।

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ মঙ্গলবার এই নির্দেশনা দিয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষকে (বিআরটিএ) চিঠি দিয়েছে।

বুধবার ওই নির্দেশনা সব জেলা প্রশাসক ও সংস্থাটির মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের পাঠানো হয়েছে। একই সঙ্গে এ নির্দেশনা পরিবহন মালিকদেরও জানানো হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ সব তথ্য জানা গেছে।

আরও জানা গেছে, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সরকার বাসের দুই আসনে একজন করে যাত্রী বহনের নির্দেশনা দিয়েছে। এই শর্তে বিদ্যমান ভাড়ার ৬০ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। তবে কিছু কিছু বাস কোম্পানি ওই ভাড়ার চেয়ে বেশি আদায় করে আসছে- এমন সংবাদ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। এরপরই কঠোর এ নির্দেশনা দিল সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ।

এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে বিআরটিএর চেয়ারম্যান মো. ইউছুব আলী মোল্লা বলেন, বাসে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ, শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা ও নির্ধারিত ভাড়ার বিষয়ে কঠোর অবস্থানে সরকার। আমরা গণপরিবহনে কোনো অনিয়ম বরদাস্ত করব না।

তিনি বলেন, বেশি ভাড়া আদায় করলে বাসের নিবন্ধন ও রুট পারমিট বাতিল করা হবে। এ ক্ষেত্রে কোনো ছাড় নয়।

বিআরটিএর একজন কর্মকর্তা বলেন, বাসের রুট পারমিট সাধারণত রিজিওনাল ট্রান্সপোর্ট কমিটি দিয়ে থাকে। আর নিবন্ধন দিয়ে থাকে বিআরটিএ। কোনো বাসের বিরুদ্ধে বাড়তি ভাড়া আদায় অথবা স্বাস্থ্যবিধি না মানার অভিযোগ প্রমাণিত হলে বিআরটিএর সহকারী পরিচালকেরা নিজস্ব ক্ষমতাবলে ওই বাসের নিবন্ধন বাতিল করতে পারবেন। নিবন্ধন বাতিল হলে রুট পারমিট স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাতিল হয়ে যাবে।

জানা গেছে, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের চিঠিতে গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘন ও অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, এটা সরকারি নির্দেশনা ও সড়ক পরিবহন আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ। যেসব গণপরিবহন স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘন ও অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার পাশাপাশি ২০১৮ সালের সড়ক পরিবহন আইন, এর সংশ্লিষ্ট ধারা/প্রচলিত বিধি-বিধান অনুযায়ী রেজিস্ট্রেশন ও রুট পারমিট বাতিল করতে বলা হয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ