আব্দুর রহিম দম্পতি অপ প্রচারের শিকার ,ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের দাবী কথা দিয়ে কথা রাখেননি শামিম !

প্রকাশিত: ৪:২২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১২, ২০১৯

আব্দুর রহিম দম্পতি অপ প্রচারের শিকার ,ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের দাবী কথা দিয়ে কথা রাখেননি শামিম !

নিজস্ব প্রতিবেদক :: ছাত্রলীগ কর্মী ইন্তাজ মির্জার চিকিৎসা খরচ সহ অন্যান্য অনেক সহায়তার কথা উল্লেখ করে ছবি প্রমান সহ ফেসবুকে স্টেটাস দিয়েছেন আব্দুর রহিম শামিম, পাঠকের জন্য তা হুবুহু তুলে ধরা হল

“সিলেট মহানগর ছাত্রলীগ কর্মী ইন্তাজ মির্জা মরণব্যাদী ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকাল করেছে ইন্নালিহী ওয়াইন্না ইলাইহী রাজিউন।
মহান আল্লাহর নিকট প্রার্থনা করি আল্লাহ যেনো তাকে বেহেস্ত নসিব করেন –আমীন ।
ইন্তাজের মৃত্যু নিয়ে সিলেটের আওয়ামী পরিবারের কিছু সংখ্যক ছোট ভাই আমাকে জড়িয়ে সামাজিক যোগাযোগ ও পোর্টালে আমি ও আমার স্ত্রী কে নিয়ে সমালোচনায় ব্যস্ত যা আমাকে বিষণ মর্মাহত ও বিধস্ত করেছে তাই এহেন পরিস্তিতিতে সত্য বিষয়টি আপনাদের সামনে উপস্থাপন করা কর্তব্য বলে মনে করি ।
আমি মনে প্রাণে ছাত্রলীগকে ভালোবাসি কারণ ছাত্রলীগ করার কারণে তিন বার মৃত্যুর মুখ থেকে আল্লাহর রহমতে ও আপনাদের দোয়ায় বেঁচে যাই কিন্তু এখনো পঙ্গুত্ব নিয়ে কষ্টের মধ্যে জীবন যাপন করছি আওয়ামীলীগের একজন নগন্য কর্মী হিসেবে কাজ করছি নেত্রীর স্নেহে উজ্জ্বিত হই । ছাত্রলীগ আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীদের কোন বিপদ দেখলে স্বেচ্ছাপ্রনোদিত হয়ে সাহায্য সহযোগিতা করি এবং করবো ।
ইন্তাজ কে আমি চিনতাম না সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার ক্যান্সার আক্রান্তের খবর জেনে লন্ডন থেকে ম্যাসেঞ্জারে তার নাম্বার নিয়ে তার সাথে যোগাযোগ করি এবং কিভাবে সাহায্য করতে পারি তখন সে জানায় একটি ক্যামো এর জন্য ৫০,০০০ পঞ্চাশ হাজার টাকা লাগবে আমি মহানগর কৃষকলীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক রেজাউল হক রাসেল , মহানগর তাঁতীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক সাহিদুর রহমান সুমন ১৬ নাম্বার ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সুমিত , আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল হামিদ ও ছাত্রলীগ নেতা সৈয়দ হুরুজ্জামান কে পঞ্চাশ হাজার টাকা দিয়ে তার বাসায় পাটাই এবং তারা ইন্তাজের হাতে টাকা দেন ( টাকা দেয়ার ছবি সংযুক্ত আছে ) পরবর্তীতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা গোলাম রব্বানী সিলেটে গিয়ে আমার বাসায় গেলে আমি তাকে ফোন করে ইন্তাজকে দেখে যেতে বলি রাব্বানী ও ইন্তাজ কে দেখে তার নিজের দুই হাজার টাকা দিয়ে আসে ।
কিন্তু টাকা পাওয়ার পর ইন্তাজ আমাকে ধন্যবাদ ও দেয়নি তাই আমি ম্যাসেঞ্জারে লিখি কিরে ধন্যবাদ দিলে না পরে সে ক্ষমা চায় আমি ও ক্ষমা করি এরপর সে স্ট্যাটাস ও দেয় তার কয়েকমাস পর আমি দেশে যাই যাই এবং তাকে জানাই কিন্তু সে আমাকে কোন ফোন ও দেয় নি দেখা ও করেনি ইতিমধ্যে ছাত্রলীগের কমিটি হয়ে গেলে আমার আমন্ত্রণে রাব্বানী সিলেট আসে আমরা হজরত শাহজালালের মাজার জিয়ারত শেষে হজরত শাহপরান এর মাজার থেকে বেরিয়ে গাড়ীতে উঠতে যাবো তখন দেখি ইন্তাজের মতো লাগছে তখন আমি একজনকে জিজ্ঞেস করে নিশ্চিত হয়ে তাকে ডাকি এবং কুশলাদী বিনিময় করি সে বলে তার মাথার চুল উঠেগেছে সে এখন সুস্থ্য আমি তাকে আমার দেশের নাম্বার দিয়ে বাসায় আসতে বলি সে ফোন ও করেনি বাসায় ও আসেনি পরে ঈদের সময় সর্বশেষ ঈদ মোবারক জানায় ম্যাসেঞ্জারে এবং এটি তার সাথে আমার শেষ যোগাযোগ । তারপর সে কখনো আমাকে ফোন ও করেনি কোন যোগাযোগ ও করেনি বা তার হয়ে অন্য কেউ ও যোগাযোগ করেনি ।
আজ খুবই দুঃখজনক সংবাদ টি পেলাম সে আমাদের মাজে নেই এবং সাথে আমার সমালোচনা করে অতিরঞ্জিত করে আমি তাকে বিদেশ নিয়ে আসবো ইত্যাদি এবং তার সকল দায়িত্ব আমার যে স্নেহাস্পদ ভাইয়েরা আমার সমালোচনা করছেন আপনারা কি কেউ সরাসরি আমার নিকট জানতে চেয়েছেন ? তাই না জেনে শোনা কথায় এভাবে সমসলোচনা মুখর হলে তাতে আগামীতে কারো সমস্যায় সহযোগিতা করতে আমাকে কি চিন্তা করতে হবে সাহায্য করতে গিয়ে কি গালি খেতে হবে ইত্যাদি এবং এতে আওয়ামী পরিবার ই ক্ষতিগ্রস্ত হবে । তাই আমার অনুরোধ না জেনে অহেতুক সমালোচনা করা থেকে বিরত থাকুন কারণ সমালোচক ও আমার ভাই তার বিরুদ্ধে আমি যেতে পারিনা আমরা দেশরত্ন শেখ হাসিনার কর্মী । ইন্তাজের সাথে

কথপোকথন সহ যাবতীয় ডকুমেন্ট ছবি সংযুক্ত আছে ।

 

ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের দাবী কথা দিয়ে কথা রাখেননি শামিম ! শাহ আলী আহমদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছেন ।
ইন্তাজের হাসপাতালের বিল এখন ও বাকি আছে আপনি কি বিল দিয়ে দিয়েছেন সবাই জানতে চায় Abdur Rahim Shamim ভাই
আর তার চিকিৎসা বাবদ কত টাকা দিয়েছিলেন আমরা সবাই জানতে চাই।
নাকি শুধু মাত্র সস্তা জনপ্রিয়তার জন্য একজনের জীবন নিয়ে খেলা করেছেন প্রশ্ন থেকেই যায়?
নিজে নিউজ করে আবার নিজের ফেইসবুকে পোষ্ট দিয়ে ভালই বাহবা নিয়ে ছিলেন আজকে ইন্তাজ মারা যাবার পরে কি তার পরিবারকে টাকা দেয়া দূর একটা কল দিয়ে কি শান্তনা দিয়েছিলেন
জানার খুভ ইচ্ছা?
নিচে কিছু বক্তবে্্যর স্কিন সট দেওয়া হল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ খবর

আমাদের ফেইসবুক পেইজ