আমেরিকায় মুক্ত বাতাসের অপেক্ষায় শেখ মকলু

প্রকাশিত: ৭:১৮ অপরাহ্ণ, জুন ৯, ২০২০

আমেরিকায় মুক্ত বাতাসের অপেক্ষায় শেখ মকলু

শেখ মকলু

প্রায় তিন মাস হয় ঘর বন্দি জীবন। এই সময়টায় ঘর থেকে কেউ বের হতে পারিনি। মুক্ত বাতাস গ্রহণ করতে পারিনি এই তিন মাস। অপেক্ষায় আছি। লকডাউল খুলবে। মুক্ত বাতাস গ্রহণ করার জন্যে ঘর থেকে বের হবো। কিন্তু তাতেও অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। কারণ আজ সোমবার ৮ জুন লকডাউন প্রত্যাহার করার কথা। কিন্তু এখনো (বাংলাদেশ সময় রাত ১১ টা) কোনো সংবাদ নেই। তারপরও আশায় বসে আছি।

আমেরিকার নিউইয়র্ক সিটিতে বসবাস করেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক শেখ মকলু। তিনি সিলেট মদন মোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ভিপিও ছিলেন।

আমেরিকার সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে শেখ মকলু দৈনিক বায়ান্নকে বলছিলেন, আমরা বন্দি জীবন কাটালেও স্বাভাবিকতা ফিরে পাচ্ছি। মূর্তিমান আতঙ্ক হিসেবে করোনার থাবা ছিল আমেরিকা জুড়ে। তা অনেকটা কেটে গেছে। তবে আতঙ্ক পুরোপুরি কাটেনি।

সাবেক এই ছাত্রনেতা শেখ মকলু বলেন, করোনাভাইরাস বিস্তার করার পর ১৫ মার্চ থেকে আমেরিকা লকডাউন করা হয়। সবাই ঘরবন্দি হয়ে পড়ি। করোনায় প্রতিদিনই মানুষ মারা যাচ্ছিল উল্লেখ্যযোগ্য হারে। সিলেটের অনেকে এই করোনায় মারা গেছেন আমেরিকায়। আমরা বাংলাদেশি বিশেষ করে সিলেটিরা সার্বক্ষণিক আতঙ্কের মধ্যে থাকতাম। যেভাবে করোনায় মানুষ মারা যাচ্ছিল তাতে জীবনের আশা ছিল না। আমেরিকায় পরিচিতি মহলকে ও সিলেটের বিভিন্ন মহলের কাছে ফোন করে দোয়া প্রার্থনা করেছি। সকলের দোয়ায় বেঁচে আছি। আল্লাহর দরবারে হাজারো শুকরিয়া।

শেখ মকলু জানান, আতঙ্ক কেটে গেছে অনেকটা। তবে পুরোপুরি আতঙ্ক কাটেনি। কারণ করোনায় এখনো মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। মারা যাচ্ছেন। এই অবস্থায় আমরা যে নিরাপদ তা বলা যাবে না। তাই আতঙ্ক রয়ে গেছে এখনো।

লকডাউনের ক্ষতি সম্পর্কে বলতে গিয়ে শেখ মকলু বলেন, এতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে শিশুরা। তারা সব সময় ঘরবন্দি ছিল। এতে তাদের মানসিক চাপের মধ্যে থাকতে হয়েছে। তিন মাস মুক্ত আলো বাতাস থেকে বঞ্চিত। এতে তারা স্বাস্থ্যগত সমস্যায় রয়েছে। মানসিক চাপ ও স্বাস্থ্যগত সমস্যা কাটিয়ে উঠতে শিশুদের অনেকটা সময় লেগে যেতে পারে।

শেখ মকলু বলেন. আমেরিকার অধিবাসীদের এখন বিশেষ চাওয়া মুক্ত বাতাস। ঘরবন্দি জীবন থেকে বের হওয়া। সেদেশের সরকার এ নিয়ে আন্তরিকভাবে কাজ করছে। আশা করছি অচিরেই আমরা মুক্ত বাতাসে যাব।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ