কঠোর লকডাউন : সিলেট নগরী জনশূন‌্য

প্রকাশিত: ২:০২ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০২১

কঠোর লকডাউন : সিলেট নগরী জনশূন‌্য

নুরুল ইসলাম

করোনা সংক্রমণ রোধে কঠোর লকডাউন শুরুর প্রথম দিনে পুরোপুরি জনশূন‌্য রয়েছে সিলেট মহানগরী। নগর ও আন্তজেলা সড়ক মহাসড়কে নেই কোনো যানবাহন। ওষুধের দোকান ছাড়া বন্ধ রয়েছে সব ধরনের দোকানপাট এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।

বুধবার (১৪ এপ্রিল) সকালে লকডাউনের শুরু থেকে সিলেট মহানগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এই চিত্র দেখা গেছে।

সকাল থেকে সিলেট নগরীর ব্যস্ততম বন্দর বাজার (কোর্ট পয়েন্ট), আম্বরখানা, চৌহাট্টা, রিকাবিবাজার, জিন্দাবাজার, উপশহর, টিলাগড়, শিবগঞ্জ, নাইওরপুল, মেডিকেল, মদিনা মার্কেট, পাঠানটুলা এলাকাসহ বেশ কয়েকটি এলাকা ঘুরে পুরোপুরি জনশূন‌্য নগরীর চিত্র পরিলক্ষিত হয়েছে। সরকারের আহ্বানে সকল নগরবাসী এখন ঘরে বন্দি।

এদিকে শহরের রাস্তাঘাটে নেই কোনো যানবাহন, নেই জনমানুষের চলাচল। দীর্ঘ সময় পর পর কখনো আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর গাড়ি, অ্যাম্বুলেন্স কিংবা জরুরি খাদ্যপণ্যবাহী গাড়ি চলাচল করতে দেখা যায়। শহরের সীমিত সংখ্যায় চলাচল রয়েছে গণমাধ্যম কর্মী, স্বাস্থ্য কর্মী, আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের বহকারী গাড়ি। দ্বিতীয়দফা কঠোর লকডাউনে জনশূন‌্য ও যান শূন‌্য এক অচেনা শহরে পরিণত হয়েছে সিলেট।

এছাড়া অতি প্রয়োজনে যারা মোটর সাইকেল, রিকশা বা সিএনজি অটোরিকশায় বের হচ্ছেন তারা পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়ছেন। ঘর থেকে বের হওয়ার কারণ জানতে চাচ্ছে পুলিশ। প্রয়োজন ছাড়া কেউ বের হয়েছেন মনে করলে পুলিশ যানবাহন থেকে নামিয়ে দিচ্ছে যাত্রী। সংশ্লিষ্ট যানবাহনের বিরুদ্ধেও আইনী ব্যবস্থা নিচ্ছে পুলিশ।

এ সময় মাঠে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা জানান, করোনা থেকে সাধারণ মানুষের সুরক্ষায় মাঠে থেকে দায়িত্ব পালন করছে পুলিশ। সাধারণ মানুষ যাতে লকডাউনে অপ্রয়োজনে ঘরের বাইরে বের না হয় সে ব্যাপারে কঠোর ভাবে সতর্ক রয়েছে পুলিশ।

তারা আরও জানান সিলেট নগরীতে জরুরি সেবার আওতাভুক্ত গাড়ি ছাড়া অন্য কোনো ধরনের যানবাহন চলাচল করছে না। সাধারণ মানুষজনও রাস্তায় নেই। আন্তঃজেলা সড়ক-মহাসড়কেও কোনো যানবাহন চলছে না। লকডাউন অমান্য করে এখন পর্যন্ত কাউকে বাসার বাইরে বের হতে দেখা যায়নি। এদিকে, শহরের বাইরে বিভিন্ন উপজেলাতেও কঠোরভাবে লকডাউন মানছে সাধারণ মানুষ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ