কমলগঞ্জে দু’পক্ষের পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনায় ৬ জনকে আটক করে পুলিশে দিল জনতা

প্রকাশিত: ৯:২৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ৯, ২০২১

কমলগঞ্জে দু’পক্ষের পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনায় ৬ জনকে আটক করে পুলিশে দিল জনতা

স্বপন দেব, নিজস্ব প্রতিবেদক :: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে দু’পক্ষের পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনায় ৬ জনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা। উপজেলার শ্রীরামপুর নয়াবাজার ও মইদাইল এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। গত বৃহস্পতিবার রাত ১০ টায় পূর্ব বিরোধের জের ধরে শ্রীরামপুর নয়াবাজারে আব্দুল মুকিতের (কাতার প্রবাসী) উপর হামলা করে একই এলাকার হেলাল মিয়া, মুহিত, সিপার উদ্দিন ও শাহজাহান। এ ঘটনায় কাতার প্রবাসী আব্দুল মুকিত গুরুতর আহত হলে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, পূর্ব বিরোধের জের ধরে আব্দুল মুকিত নামের এক ব্যক্তি আহত হওয়ার ঘটনার জের ধরে শুক্রবার দুপুরে মুকিত ও হেলালের লোকজন মুন্সীবাজার ইউনিয়নের মইদাইল জামে মসজিদে জুম্মার নামাজের সময় দেশীয় অস্ত্র নিয়ে একে অপরের উপর হামলা চালালে গেলে মুসল্লীগন তাদের দুই পক্ষের লোকজনকে আটক করে কমলগঞ্জ থানা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে পতনঊষার ইউনিয়নের শ্রীরামপুর গ্রামের আব্দুর রশীদের ছেলে হেলাল মিয়া (৩৫) ও মুহিত মিয়া (৩২), একই ইউনিয়নের চাঁনপুর গ্রামের মজম্মিল মিয়ার ছেলে রাসেল মিয়া (২৮), একই গ্রামের সিজিল মিয়ার ছেলে সজিব আহমেদ (১৭), বশির মিয়ার ছেলে আলমগীর মিয়া (২৫) এবং হাসপাতাল থেকে আব্দুল মনিরের ছেলে আব্দুল মুকিত (২৮) কে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।
এ ব্যাপারে আহত আব্দুল মুকিত জানান, কিছুদিন আগে আমি প্রবাস থেকে দেশে ফিরেছি। গত বৃহস্পতিবার রাতে শ্রীরামপুর নয়াবাজারে আমাকে একা পেয়ে হেলালের নেতৃত্বে মুহিত, সিপার ও শাহজানরা সংঘবদ্ধ হয়ে অতর্কিত হামলা করে আহত করে। আমি চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় আবারে হেলাল গংরা শুক্রবার হামলা চালানোর চেষ্টা চালায়।
তবে হেলালের দাবী, শুক্রবার দুপুরে পৌর মেয়রের সাথে কাজ শেষ করে হাসপাতালে গেলে চিকিৎসাধিন মুকিতের লোকজন আমাদের দেখতে পেয়ে ধাওয়া করে। পরে আমরা ভয়ে মইদাইল জামে মসজিদে আশ্রয় নিয়ে মুসল্লিরা দু’পক্ষকেই আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।
এদিকে পতনঊষার ইউনিয়নের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন জানান, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে হামলার ঘটনা ঘটেছে।
এ বিষয়ে কমলগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক সিরাজুল ইসলাম ৬ জনকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মসজিদের মুসল্লীরা খবর দিলে পুলিশ ৬ জনকে আটক করে নিয়ে আসে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কোন লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ