করোনার মধ্যেই হোয়াইট হাউসে ট্রাম্পের পার্টি

প্রকাশিত: ৪:৪০ অপরাহ্ণ, জুলাই ৫, ২০২০

করোনার মধ্যেই হোয়াইট হাউসে ট্রাম্পের পার্টি

সিল-নিউজ-বিডি ডেস্ক :: কোভিড-১৯ মহামারীতে হাজার হাজার মানুষ মারা যাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রে। রোজ মৃত্যুর মিছিলে যোগ হচ্ছে শয়ে শয়ে মানুষ। কিন্তু দেশটির প্রেসিডেন্ট ধার ধারছেন না করোনার। দিব্যি সভা-সমাবেশ করে যাচ্ছেন। করোনা পরিস্থিতিকে কোনোরকম পাত্তা না দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে হোয়াইট হাউসে পার্টির আয়োজন করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ওয়াশিংটন সিটি মেয়র স্বাস্থ্যঝুঁকির ব্যাপারে সতর্ক করলেও শনিবার হোয়াইট হাউসের সামনে শত শত মানুষকে ভিড় করতে দেখা গেছে। এ নিয়ে আবারও সমালোচনার মুখে পড়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

পরিসংখ্যান বলছে, যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যের মধ্যে ৩৯টিতেই করোনার সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী। নিউইয়র্ক টাইমস এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে– আলাবামা, আলাসকা, কানসাস, নর্থ ক্যারোলিনা এবং সাউথ ক্যারোলিনা অঙ্গরাজ্যে শুক্রবার একদিনে সর্বোচ্চ সংক্রমণের রেকর্ড হয়েছে।

জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিসংখ্যান বলছে– যুক্তরাষ্ট্র ২৮ লাখ ৩৯ হাজার ৪৩৬ রোগী ও ১ লাখ ২৯ হাজার ৬৭৬ মৃত্যু নিয়ে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যায় বিশ্বের শীর্ষে আছে।
ওয়ার্ল্ডওমিটানসের তথ্য বলছে, রোববার বেলা সাড়ে ৩টা পর্যন্ত ২৯ লাখ ৩৫ হাজার ৭৭০ জন আক্রান্ত হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রে। আর মারা গেছেন ১ লাখ ৩২ হাজার ৩১৮ জন।

এসব ভয়ঙ্কর পরিসংখ্যানেও টনক নড়ছে না ট্রাম্পের।

জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের শনিবারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে শুক্রবার রেকর্ডসংখ্যক মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। পরিসংখ্যানে একদিনে ৫২ হাজার ৩০০ মানুষ আক্রান্ত হওয়ার তথ্য উঠে এলেও তা ট্রাম্পকে দমাতে পারেনি। বিবিসি জানিয়েছে, পার্টিতে আমন্ত্রিতদের মধ্যে রয়েছে সেসব স্বাস্থ্যকর্মীও, যারা দীর্ঘ সময় ধরে করোনা মোকাবেলায় কাজ করছেন।

এই সমাগমের বিরোধী ওয়াশিংটনের সিটি মেয়র। ‘আমরা শহরবাসীকে ছুটির দিনটিতে বাইরে বের না হওয়ার ব্যাপারে সতর্ক করছি’, বলেছিলেন মেয়র মুরিয়াল বাউজার। পরে সাংবাদিকদের কাছে তিনি প্রশ্ন রাখেন– ‘আপনারা নিজেদেরই জিজ্ঞেস করে দেখুন তো। এমন পরিস্থিতিতে সেখানে [হোয়াইট হাউসে] যাওয়ার কি কোনো দরকার ছিল?’

এর আগে সাউথ ডাকোটার মাউন্ট রাশমোরে ভাষণের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান শুরু করেন ট্রাম্প। ভাষণে তিনি বলেন, চীন থেকে আসা ‘ভয়াবহ প্লেগকে’ হারিয়ে ‘অসাধারণ এক জয়ের পথে’ এগিয়ে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে বাস্তবতা একেবারেই ট্রাম্পের বক্তব্যের বিপরীতে অবস্থান করছে।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ