করোনার টিকার জরুরি ব্যবহারের অনুমতি চায় জনসন

প্রকাশিত: ৩:১৬ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২১

করোনার টিকার জরুরি ব্যবহারের অনুমতি চায় জনসন

অনলাইন ডেস্ক

মার্কিন ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্ট জনসন অ্যান্ড জনসন তাদের ‘উদ্ভাবিত’ কোভিড ভ্যাকসিনের জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন চেয়ে আবেদন করেছে।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ঔষধ প্রশাসনের (এফডিএ) কাছে প্রতিষ্ঠানটি এই অনুমোদন চেয়েছে। টিকাটির প্রথম ডোজ ব্যবহারের অনুমোদন চাওয়া হয়েছে। এর আগে ফাইজার তাদের উদ্ভাবিত টিকার দুই ডোজ ব্যবহারের কার্যকারিতা দাবি করেছে। খবর আনাদোলুর।

জনসন অ্যান্ড জনসনের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা পল স্টোফেলস এক বিবৃতিতে বলেছেন, আজ করোনার টিকা জরুরি ব্যবহারের জন্য আবেদন করেছি। টিকার অনুমোদন পেলে সরবরাহ শুরু করতে আমরা প্রস্তুত রয়েছি। আমাদের টিকা যত তাড়াতাড়ি জনসাধারণের কাছে সহজলভ্য করা যায়, তার জন্য দ্রুততার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছি। এই টিকা করোনা থেকে সুরক্ষা দিতে কার্যকর বলে দাবি জনসনের।

এফডিএ জানিয়েছে, বাইরের বিশেষজ্ঞরা এ টিকাটির পর্যালোচনা নিয়ে এখন ২৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত উন্মুক্ত আলোচনা করবেন।

জনসন জানিয়েছে, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে তাদের টিকা ৬৬ শতাংশ কার্যকর। এক ডোজ প্রয়োগের পর এই ফল পাওয়া গেছে।

দক্ষিণ আফ্রিকায় জনসন তাদের টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চালিয়েছে। দেশটিতে করোনার নতুন স্ট্রেইনের সংক্রমণ বাড়ছে। সেখানে জনসনের টিকার কার্যকারিতা পাওয়া যায় ৫৭ শতাংশ।

এ ছাড়া টিকা দুই ডোজ প্রয়োগ করা হলে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা আরও শক্তিশালী হয় কিনা বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন সংশ্লিষ্টরা। সংস্থাটি দাবি করেছে, প্রাথমিক ট্রায়ালে দেখা গেছে দুই ডোজে করোনা প্রতিরোধে জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা ৮৫ শতাংশ কার্যকর।

সংস্থাটি চলতি বছর বিশ্বব্যাপী এক বিলিয়ন টিকার ডোজ সরবরাহ করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ