করোনায় মহান রবের করুণা কামনা

প্রকাশিত: ১২:২৬ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৩, ২০২০

করোনায় মহান রবের করুণা কামনা

মুফতি আমজাদ হোসাইন হেলালী :; বর্তমানে প্রায় সারা বিশ্বে করোনা ভাইরাসের প্রভাব চলছে। অনেকে এ ভাইরাসের তা-বে আতঙ্কিত ও উৎকণ্ঠিত।

ভাইরাসে অনেকে আক্রান্ত হচ্ছেন। আবার কেউ কেউ মারাও যাচ্ছেন। মূলত করোনাভাইরাস আল্লাহর দেওয়া একটি রোগ, একটা ভাইরাস। ভাইরাস বলতে আমরা বুঝি সংক্রমিত রোগ। সংক্রমিত রোগ সম্পর্কে শরিয়তের দৃষ্টভঙ্গি হলো, কোনো রোগের মাঝে সংক্রমণের নিজস্ব কোনো ক্ষমতা নেই, সব ক্ষমতা রোগের সৃষ্টিকর্তা একমাত্র আল্লাহর। আল্লাহর হুকুম ছাড়া এ রোগের সামান্যতম নড়াচড়া করার কোনোই ক্ষমতা নেই। যদি কখনো কোথাও সংক্রমিত হয় তাও একমাত্র আল্লাহর হুকুমেই হয়। একজন প্রকৃত মুমিনের মৌলিক আকিদা বিশ্বাস এমনই থাকতে হবে। সর্বাবস্থায় আল্লাহর ফায়সালার ওপর নিজেকে সঁপে দিতে হবে। তাহলে কিন্তু সে আল্লাহর পক্ষ থেকে অনেক বড় পুরস্কার পাবেন। এ সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে কত সুন্দর ও সুস্পষ্টভাবে ইরশাদ হয়েছে।
‘সূরা আত-তালাক, আয়াত-৩ অর্থাৎ তাকে তার ধারণাতীত জায়গা থেকে রিজিক দেবেন। যে ব্যক্তি আল্লাহর ওপর ভরসা করে তার জন্য তিনিই যথেষ্ট। আল্লাহ তার কাজ পূর্ণ করবেন। আল্লাহ সবকিছুর জন্য একটি পরিমাণ স্থির করে রেখেছেন।’ হাদিস শরিফে হজরত রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ‘রোগব্যাধি তার নিজস্ব ক্ষমতায় একজনের দেহ থেকে আরেকজনের দেহে লেগে যায় না’ (সহিহ মুসলিম-৫৭৪২)। এই তো আমরা সংক্রমিত রোগ সম্পর্কে সংক্ষেপে জানলাম। এখন আমাদের জানতে হবে জমিনবাসীর ওপর রোগ, বালা-মুসিবত ও আজাব কেন আসে? এ সম্পর্কে আল্লাহতায়ালা পবিত্র কোরআনে ইরশাদ করেন, ‘তোমাদের ওপর যেসব বিপদ-আপদ পতিত হয়, তা তোমাদের কৃতকর্মেরই ফল’, (সূরা ৩০)। বোঝা গেল, রোগ, বালা-মুসিবত, বিপদ-আপদ সব জমিনবাসীর গুনাহের কারণে এসে থাকে। যখন অপরাধ অতিরিক্ত বেড়ে যায় তখন আল্লাহপাক সামান্য একটু রোগ, বিপদ-আপদ ও আজাব দিয়ে জমিনবাসীকে সতর্ক করে দেন। এ ভাইরাসও আল্লাহ প্রদত্ত একটি আজাব। এ আজাব আমাদের গুনাহের কারণে এসেছে। কেননা বর্তমানে পৃথিবীতে যে পরিমাণ গুনাহ, জুলুম অত্যাচার, অন্যায়-অবিচার, বেড়েছে তাতে জাহেলিয়াতের কঠিন যুগকেও পেছনে ফেলে দিয়েছে। এখন একটি প্রশ্ন আসতে পারে তাহলে মুসলমান এতে আক্রান্ত হচ্ছে কেন?

কোরআনে কারিমে সূরা রুমে ইরশাদ হচ্ছে, ‘স্থলে ও জলে মানুষের কৃতকর্মের দরুন বিপর্যয় ছড়িয়ে পড়েছে। আল্লাহ তাদের কর্মের শাস্তি আস্বাদন করাতে চান, যাতে তারা ফিরে আসে’ (রুম-৪১)। আল্লাহ মুমিনদের তাদের গুনাহের শাস্তি দুনিয়াতেই দিয়ে দিতে চান, যাতে তাদের আখেরাতে গুনাহের শাস্তি ভোগ করতে না হয়। তারা যেন কোনো আজাব ছাড়াই গুনাহমুক্ত হয়ে জান্নাতে যেতে পারে। এ কারণে বলা হয়- দুনিয়াতে মুমিন মুসলমানদের ওপর যেসব বিপদ-আপদ ও বালা-মুসিবত আসে তা আসলে বিপদ-আপদ নয়, বরং এটা তাদের জন্য হলো আল্লাহর রহমত বা নেয়ামত। কাফের, মুশরিকদের জন্য আজাব।

আল্লাহপাক আমাদের এ বিপদ থেকে উদ্ধার করবেন ইনশাল্লাহ। আমিন।

লেখক : মুহাদ্দিস, মুফাসসির, খতিব ও টিভির ইসলামী প্রোগ্রাম উপস্থাপক।
সুত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ