কানাইঘাটে অস্ত্র ঠেকিয়ে গৃহবধূকে গণধর্ষণ, ওসমানীতে ভর্তি

প্রকাশিত: ১১:৪৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ২, ২০২০

কানাইঘাটে অস্ত্র ঠেকিয়ে গৃহবধূকে গণধর্ষণ, ওসমানীতে ভর্তি

 নিজস্ব প্রতিনিধি কানাইঘাট উপজেলার দক্ষিণ বাণীগ্রাম ইউনিয়নের ব্রাহ্মণগ্রামে অস্ত্রের মুখে এক গৃহবধূকে (২২) গণধর্ষণ করেছে পাষণ্ডরা। গতকাল বুধবার দিনগত রাত ১টার দিকে প্রবল বৃষ্টি চলাকালে ন্যাক্কারজনক এ ঘটনা ঘটে। পাশবিকতার স্বীকার গৃহবধুকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, গৃহবধূর স্বামী একজন নিম্নআয়ের মানুষ। উপজেলার গাছবাড়ি বাজারে ছোট্ট একটি দোকান রয়েছে তার। গতকাল বুধবার রাতে প্রচন্ড বৃষ্টির কারণে বাড়ি ফিরতে পারেননি। এর সুযোগে একই গ্রামের নুরুদ্দিনের ছেলে আজাদ (২৫) ও তার সহযোগিরা (মুখোশধারি) তার মাটির ঘর কেটে ঘরে প্রবেশ করে ঘরে থাকা তার স্ত্রীর গলায় অস্ত্র ঠেকিয়ে চোখ বেধে গণধর্ষণ করে। গৃহবধু এসময় চিৎকার করলেও বৃষ্টির কারণে আশপাশের লোকজন তা শুনতে পাননি। গৃহবধুর স্বামী জানান, রাত ৩টার দিকে তার ছোট ভাই টেলিফোনে বিষয়টি জানালে তিনি বৃষ্টির মধ্যে বাড়ি ফিরেন। ধর্ষণকারিরা তার ঘরের কিছু মালামালও লুট করে নেয়। তার স্ত্রী ধর্ষণকারিদের একজনকে চিনতে পারেন। সে পাশের বাড়ি নুরুদ্দিনের ছেলে আজাদ। অন্যরা মুখোশপরা থাকায় তাদের চেনা যায়নি। সিলেট ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে যোগাযোগ করে গৃহবধূ চিকিৎসাধীন থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে, কানাইঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শামসুদ্দোহা পিপিএম জানিয়েছেন, ‘এ বিষয়ে এখনও আমাদের কাছে কোন অভিযোগ আসেনি। আমরা এখনই খোঁজ নিচ্ছি।’ তবে, স্থানীয় একটি সূত্র জানিয়েছে, গৃহবধূ দরিদ্র পরিবারের সদস্য হওয়ায় স্থানীয়ভাবে সালিশের মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তির চেষ্টা করছেন একদল প্রভাবশালী লোক। দুশ্চরিত্রের লোক আজাদের বিরুদ্ধে চুরি, ছিনতাই, ধর্ষণসহ একাধিক অভিযোগ থাকলেও প্রভাবশালীদের কারণে তার বিরুদ্ধে কেউ ব্যবস্থা নিচ্ছে না।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ