কানাইঘাটে দুই পক্ষের সংঘর্ষ প্রতিপক্ষের মামলার প্রধান আসামী নুর গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৬:৪৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৩, ২০২১

কানাইঘাটে দুই পক্ষের সংঘর্ষ প্রতিপক্ষের মামলার প্রধান আসামী নুর গ্রেফতার

কানাইঘাট প্রতিনিধিঃ
কানাইঘাট উপজেলার বড়চতুল ইউপি’র মালিগ্রামে পবিত্র জুম্মার নামাজের পর দুই পক্ষের সংর্ঘষ নিয়ে প্রতিপক্ষের দায়ের করা মামলার প্রধান আসামী মৃত মুবশি^র আলীর পুত্র আব্দুন নুরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় তাকে স্থানীয় চতুল এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। ১৫ জানুয়ারী জুম্মার নামাজের পর একই গ্রামের মৃত আব্দুল ওহাবের পুত্র জমির উদ্দিন ও মুবশি^র আলীর পুত্র আব্দুন নুর গংদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে উভয় পক্ষের লোকজন আহত হলেও জমির উদ্দিন পক্ষের লোকজন বেশি গুরুত্বর আহত হয়েছেন। গতকাল শনিবার সরেজমিনে জানা যায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মুলত এ সংর্ঘষের সূত্রপাত হয়েছে। এ সময় ইয়াসমিন আক্তার মিনু ও হোসনে আরা বেগম সহ বেশ কয়েকজন জানান ঐদিন পবিত্র জুম্মার নামাজের পর জমির উদ্দিনের পুত্র আলা উদ্দিন মসজিদ থেকে বাড়ি ফেরার পথে প্রতিপক্ষের লোকজন তাকে আক্রমন করতে চাইলে সে দৌড় দিয়ে বাড়ি ফেরার চেষ্টা করে। এতে মুবশি^র আলীর পুত্র আব্দুন নুর, আব্দুন নুরের পুত্র গুলজার হোসেন রুবেল, মুবশি^র আলীর পুত্র হুসন আহমদ, শরীফ উদ্দিন, আব্দুন নুরের পুত্র শাহরিয়া হোসেন, মৃত মাওঃ মুহিবুল হকের পুত্র সোহেল আহমদ, মৃত মহরম আলীর পুত্র বশির উদ্দিন, মৃত হবিব আলীর পুত্র মোহাম্মদ আলী, আতাউর রহমানের মারুফ আহমদ, আব্দুস ছালামের পুত্র হানিফ আলী, হাফিজ আলীর পুত্র নুরুল ইসলাম, আজিজুর রহমানের পুত্র নাজিম উদ্দিন সহ একটি দল তার পিছু নেয়। এক পর্যায় তারা জমির উদ্দিনের বাড়িতে এসে হামলা করে মহিলা সহ ৬ থেকে ৭ জন লোককে রক্তাক্ত গুরুত্বর জখম করে। এতে জমির উদ্দিনের পক্ষের লোকজনও প্রতিহতের চেষ্টাকালে আব্দুন নুর গংদেরও কয়েকজন আহত হন। এছাড়াও ইয়াসমিন ও হোসনে আরা জানিয়েছেন আব্দুন নুরের পুত্র গুলজার হোসেন রুবেল তাদের লোকজনকে বেশি পিঠিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে। সে বিজিবি জোয়ান। বর্তমানে খাগড়াছড়িতে কর্মরত রয়েছে। বাড়িতে ছুটিতে এসে সে এই কান্ড ঘটিয়েছে বলে তারা দাবী করেছেন। পরে বাড়িতে অনাধিকার প্রবেশ করে মহিলা সহ লোকজনকে রক্তাক্ত জখম করার দায়ে জমির উদ্দিন বাদী হয়ে সিলেটের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও আমলী আদালতে আব্দুন নুরকে প্রধান আসামী করে মামলা দায়ের করেন। এদিকে ঐদিনই আব্দুন নুর পক্ষের লোকজন কানাইঘাট থানায় জমির উদ্দিন গংদের বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা দায়ের করেছেন। বর্তমানে উভয় পক্ষের পাল্টাপাল্টি মামলা চলছে।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ