কামরানের মৃত্যুতে শোকে কাতর পূর্ণভুমি সিলেট

প্রকাশিত: ৬:৫৪ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৫, ২০২০

কামরানের মৃত্যুতে শোকে কাতর পূর্ণভুমি সিলেট

নিজস্ব প্রতিবেদক :: শোকে কাতর পুরো সিলেট, ঘুমিয়ে থাকা নগরীকে জাগিয়ে দিল একটি সংবাদ। কেউ বিশ্বাস করতে পারছেন না সিলেটবাসীর প্রিয় মানুষ বদর উদ্দিন আহমদ কামরান আর নেই।তার মৃত্যুর সংবাদে পুরো সিলেট জুড়ে শোকের ছায়া।

সাদাটুপি,মুজিব কোর্টের সাথে সাদা পাঞ্জাবি, মুখে কালো গোঁফ আর চোখে চশমা পড়া সদা হাস্যোজ্জ্বোল এই লোকটির নাম বদরউদ্দিন আহমদ কামরান।সিলেটের মানুষের কাছে তিনি ‘মেয়র সাব’ হিসেবে পরিচিত ছিলেন।সিলেটের রাজনীতির এক অবিচ্ছেদ্য অংশ বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।

সিলেটবাসীর এই প্রিয় ‘মেয়র সাব’ নামটি হারিয়ে গেছে আজ।ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন জনতার মেয়র।

সিলেট পৌরসভার সর্বকনিষ্ঠ কমিশনার নির্বাচিত হয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন কামরান। এরপর থেকেই রাজনীতিতে তার উত্থান পর্ব শুরু।

১৯৬৯ এর উত্তাল সময়ে রাজনীতিতে হাতেখড়ি কামরানের। ৭২ সালে উচ্চ মাধ্যমিকের ছাত্র থাকা অবস্থায় সিলেট পৌরসভার সর্বকনিষ্ঠ কমিশনার হয়ে চমক দেখান তিনি। সেই থেকেই সিলেট পৌরসভার অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে পড়েন। টানা ১৫ বছর ছিলেন পৌরসভার কমিশনার। মাঝখানে প্রবাসে থাকায় একবার নির্বাচন থেকে বিরত ছিলেন। ফিরে এসে ১৯৯৫ সালে পৌরসভার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ২০০২ সালে সিলেট সিটি করপোরেশন হলে ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব পান কামরান।

২০০৩ সালে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রথম মেয়র নির্বাচিত হয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করেন তিনি। ওয়ান ইলেভেনের সময় দুই বার কারাবরণ করতে হয় এই নেতাকে। ২০০৮ সালে কারাগারে থাকা অবস্থায় নির্বাচনে লড়ে বিপুল ভোটে মেয়র নির্বাচিত হন। তবে সর্বশেষ দুটি সিটি নিবর্চাচনে বিএনপির প্রার্থী আরিফুল হক চোধুরীর কাছে হেরে যান তিনি।

১৯৮৯ সালে শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সিলেটের আওয়ামী রাজনীতির শীর্ষ নেতৃত্বে আসেন বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। ১৯৯২ সালে এবং ১৯৯৭ সালে পুনরায় সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হোন। ২০০২ সালে প্রথমবারের মত সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন কামরান। ২০০৫ এ সম্মেলনের মাধ্যমে এবং ২০১১ সালে গঠিত কমিটিতে মহানগর আওয়ামী লীগের পুনরায় সভাপতির দায়িত্ব পান। দীর্ঘ তিন দশক সিলেটের রাজনীতিতে নেতৃত্ব দিয়েছেন বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।

গত বছরের ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলনে সভাপতির পদ হারান কামরান। প্রায় তিন দশক কামরানবিহীন পথচলা শুরু হয় সিলেট আওয়ামী লীগের। তবে পরবর্তী কেন্দ্রীয় কমিটির সম্মিলনে নির্বাহী সদস্য করা হয় কামরানকে।

আজ তার মৃত্যুতে সিলেটের আরেক নক্ষত্রের পতন হলো। প্রিয় নেতার শোকে কাতর সিলেটবাসী।

সবার প্রিয় সাবেক মেয়র কামরান আর নেই এ নিয়ে বেকিং নিউজে সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক আসাদ উদ্দিন

Posted by Syl News BD on Sunday, 14 June 2020

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ