কুলাউড়ায় এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, সেলসম্যান স্বামী পলাতক

প্রকাশিত: ৮:৫১ অপরাহ্ণ, জুলাই ৯, ২০২০

কুলাউড়ায় এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, সেলসম্যান স্বামী পলাতক

স্বপন দেব, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় থানা পুলিশ মুন্নি আক্তার নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে। বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) দুপুরে কুলাউড়া গ্রাম থেকে গৃহবধূ মুন্নি আক্তারের(২৮) লাশ উদ্ধার করে। মুন্নির স্বামী নাহিম মিয়া কুলাউড়ার এক বেসরকারি কোম্পানির সেলসম্যান হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নাহিম মিয়া তার স্ত্রী মুন্নিকে নিয়ে কুলাউড়া গ্রামের একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন। আজকে ুপুর পর্যন্ত সেই বাসাররজা না খোলায় বাসার অন্য ভাড়াটিয়াদের সন্দেহ হলে তারা কুলাউড়া থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে ওই বাসা থেকে গৃহবধূ মুন্নির লাশ উদ্ধার করে। পুলিশ বলছে, বাসায় মুন্নির স্বামী নাহিম মিয়াকে বাসায় পাওয়া যায়নি। সে পলাতক রয়েছেন।

কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইয়ারদৌস হাসান জানান, গৃহবধূ মুন্নির লাশ সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে কিভাবে সে মারা গেছে তা ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে।কুলাউড়ায় এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, সেলসম্যান স্বামী পলাতক

স্বপন দেব, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় থানা পুলিশ মুন্নি আক্তার নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে। বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) দুপুরে কুলাউড়া গ্রাম থেকে গৃহবধূ মুন্নি আক্তারের(২৮) লাশ উদ্ধার করে। মুন্নির স্বামী নাহিম মিয়া কুলাউড়ার এক বেসরকারি কোম্পানির সেলসম্যান হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নাহিম মিয়া তার স্ত্রী মুন্নিকে নিয়ে কুলাউড়া গ্রামের একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন। আজকে ুপুর পর্যন্ত সেই বাসাররজা না খোলায় বাসার অন্য ভাড়াটিয়াদের সন্দেহ হলে তারা কুলাউড়া থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে ওই বাসা থেকে গৃহবধূ মুন্নির লাশ উদ্ধার করে। পুলিশ বলছে, বাসায় মুন্নির স্বামী নাহিম মিয়াকে বাসায় পাওয়া যায়নি। সে পলাতক রয়েছেন।

কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইয়ারদৌস হাসান জানান, গৃহবধূ মুন্নির লাশ সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে কিভাবে সে মারা গেছে তা ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ