কোম্পানীগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

প্রকাশিত: ১১:৪৫ অপরাহ্ণ, জুন ২৭, ২০২০

কোম্পানীগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি:
বন্যায় তলিয়ে গেছে পুরো কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা। পাহাড়ি ঢল ও অনবরত বৃষ্টিতে প্লাবিত হয়ে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা যেন একটি ছোটখাটো উপসাগরে রূপ নিয়েছে। চারদিকে শুধু পানি আর পানি। ধলাই নদী, উৎমা নদী ও সুরাই নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করে উপচে পড়েছে মানুষের ঘর-বাড়ি, রাস্তা-ঘাট এবং বাজার গুলোতে। পুরো উপজেলাবাসী অসহায় এবং আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। ৩ দিন থেকে বিভিন্ন এলাকার বাড়ি-ঘর পানির নিছে থাকায় মানুষের খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে। অনেক স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, মসজিদ ইতিমধ্যেই অস্বাভাবিক পানিতে তলিয়ে গেছে। বন্যা কবলিত মানুষগুলো এখন নিরুপায় হয়ে শঙ্কিত দিনাতিপাত করছে।

বন্যা কবলিত এলাকার লোকজন জানিয়েছেন, গত দেড় যুগেও এই ধরনের বন্যার কবলে তাদেরকে পড়তে হয়নি। পূর্ব প্রস্তুতি না থাকায় আকষ্মিক এই বন্যার কারনে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির হয়েছে বাড়ি-ঘর, আসবাবপত্র ও গবাদিপশুর।

উপজেলা পরিষদ ও থানাসহ কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রাম পানির নীচে তলিয়ে গেছে ইতিমধ্যে। মানুষ জীবন রক্ষার্থে তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে আশ্রয় নিচ্ছে অপেক্ষাকৃত কম বন্যা কবলিত এলাকাগুলোতে। কেউ কেউ আবার যাচ্ছে আশ্রয় কেন্দ্র গুলোতে। কিন্তু বন্যা কবলিত এলাকায় এখনো ত্রাণ সহায়তা পৌঁছায়নি।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুমন আচার্য জানিয়েছেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ৩৫টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে। মসজিদে মাইকিং করে জানিয়ে দেয়া হয়েছে বন্যার পানিতে আটকে পড়ার আগেই যেন আশ্রয় কেন্দ্রে মানুষজন চলে আসেন। তিনি আরো জানান, বন্যা কবলিত এলাকায় রবিবার থেকে ত্রাণ সহায়তা দেয়া হবে। উপজেলার সকল চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের কাছে পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট দেয়া হয়েছে বন্যা কবলিত এলাকার মানুষদের মাঝে বিতরণ করার জন্য।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ