‘খেলোয়াড়দের করোনা মুক্ত রাখতেই এমন সিদ্ধান্ত’

প্রকাশিত: ৭:৪৬ অপরাহ্ণ, জুন ১৪, ২০২০

‘খেলোয়াড়দের করোনা মুক্ত রাখতেই এমন সিদ্ধান্ত’

স্পোর্টস ডেস্ক :: করোনাভাইরাস ছোঁয়াচে রোগ হওয়ায় বিশ্লেষকদের অনেকেই বলছেন, বলে মুখের লালা ব্যবহার করলে ক্রিকেটারদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি।

সেই আশঙ্কা এড়াতেই টেস্ট ক্রিকেটে বলে লালা ব্যবহারের প্রচলিত নিয়ম নিষিদ্ধ করার জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলকে (আইসিসি) প্রস্তাব দিয়েছে আইসিসির ক্রিকেট কমিটি।

এ ব্যাপারে আইসিসির ক্রিকেট কমিটির চেয়ারম্যান অনিল কুম্বলে বলেছেন, এটা একেবারেই মেডিকেল ডিসিশন। খেলার মাধ্যমে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে এবং ক্রিকেট চালু রাখতে আমাদের আর কোনো বিকল্প নেই। আমাদের এই প্রস্তাবে টেস্ট ক্রিকেট যে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত হবে, তাকে কোনো সংশয় নেই।

ভারতীয় সাবেক এ তারকা ক্রিকেটার আরও বলেছেন, টি-টোয়েন্টি বা ওয়ানডে ফরম্যাটে থুতু খুব বেশি প্রভাব ফেলেও না। সে জন্যই সীমিত ওভারের ম্যাচে থুতু নিষিদ্ধ হওয়া নিয়ে কেউ কিন্তু আলোচনাও করছে না। অবশ্যই আমাদের হাত থেকে একটা অস্ত্র চলে গেল। এখন বলের পালিশ ধরে রাখতে শুধু ঘামের ব্যবহার কতটা কার্যকরী হবে, কেউই তা জানি না।

টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ ৬১৯ উইকেট শিকার করা অনিল কুম্বলে আরও বলেছেন, ক্রিকেটে আরও একটা অনন্য অস্ত্র রয়েছে, যার সুবিধে অন্যান্য খেলায় সেভাবে পাওয়া যায় না। সেটা হল পিচ। ব্যাটসম্যান ও বোলারদের লড়াইয়ে পিচের চরিত্র একটা বড় প্রভাব রাখে। ভারসাম্য ধরে রাখতে এখন আমাদের সেটাকে কাজে লাগাতে হবে। আমার মতে, স্পিনারদের লড়াইয়ে রাখার ক্ষেত্রে এটা একটা দারুণ সুযোগ।

করোনায় খেলতে নেমে কোনো ক্রিকেটার আক্রান্ত হলে তার পরিবর্তে অন্য আরেকজন ক্রিকেটার খেলানোর প্রস্তাব দিয়েছে ইংল্যান্ড। তাদের সেই প্রস্তাবে সায় দিয়েছে আইসিসির ক্রিকেট কমিটি।

এ প্রসঙ্গে ভারতীয় সাবেক অধিনায়ক অনিল কুম্বলে বলেছেন, এই প্রস্তাবও মেডিকেল টিম দল দিয়েছে। টেস্টের মাঝপথে কোনো ক্রিকেটার করোনায় আক্রান্ত হলে সতর্কতা হিসেবে সেই ক্রিকেটারকে সরিয়ে অন্য আরেকজন খেলানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ