গোয়াইনঘাটে চলছে কুকুরের টীকাদান কর্মসূচি

প্রকাশিত: ৬:৪০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২১

গোয়াইনঘাটে চলছে কুকুরের টীকাদান কর্মসূচি

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধিঃ জলাতঙ্ক রোগ প্রধানত কুকুর ও বিড়ালের কামড় বা আঁচড়ে ছড়ায়। এ এক মরণব্যাধি। এই রোগ নিয়ে জনমনে আতঙ্ক রয়েছে। সেই আতঙ্ক থেকেই কুকুর সম্পর্কে মানুষের বিরূপ ধারণা তৈরি হয়েছে। দেশকে জলাতঙ্কমুক্ত করার লক্ষ্যে ২০১০ সালে থেকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় যৌথভাবে জাতীয় জলাতঙ্ক নির্মূল কর্মসূচি হাতে নেয়। কর্মসূচির অংশ হিসেবে সারা দেশে জলাতঙ্ক নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল কেন্দ্র চালু করা হয়। জলাতংক রোগ নির্মূলে কুকুরের টিকাদান কর্মসূচীর কার্যক্রম সিলেট জেলার গোয়াইনঘাট উপজেলায় চলছে। গোয়াইনঘাট উপজেলার ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসাপাতাল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা রেহান উদ্দীনসহ সংশ্লিষ্ট সকলের তত্বাবধানে টীকাদান কর্মসূচী বাস্তবায়নে ১৯ ফেব্রয়ারী শুক্রবার প্রথম পর্যায়ে ব্যাপক হারে কুকুরের টিকাদান কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে এ কার্যক্রম চলবে আগামী ২৩ ফেব্রয়ারী পর্যন্ত বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে। জানা যায়,এ কর্মসূচীর আওতায় উপজেলার সকল ইউনিয়ন, গ্রাম, ও পাড়ায় অবস্থান করা প্রতিটি কুকুরকে এ কর্মসূচীর আওতায় টিকা প্রদান করা হচ্ছে। কুকুরের টিাকা প্রদানকারী স্বেচছাসেবকগণ বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে কুকুর ধরে ধরে মাংস পেশীতে টিকা প্রদান করছে। কুকুরগুলিকে একটি জালের ফাতে আটকে টিকা প্রদান করা হচ্ছে । এ সময় টিকা প্রাপ্ত কুকুরকে লাল রং লাগিয়ে দিয়ে তা চিহ্নিত করা হচ্ছে যেন একটি কুকুরকে বার বার টিকা প্রদান করা না হয়। কুকুরের টিকাদান কর্মসূচী সফল ভাবে সম্পন্ন ও সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে উপজেলার সর্বত্রই ব্যাপক হারে প্রচারনা করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা রেহান উদ্দীন বলেন, অত্র উপজেলায় কুকুরের টিকাদান কর্মসূচীর কার্যক্রম সফলভাবে সম্পন্ন হলে এ অঞ্চলে মানুষের মাঝে জলাতংক রোগ অনেকটা কমিয়ে আনা সম্ভব হবে। তিনি আরো বলেন, এ কর্মসুচী অব্যাহত থাকলে পর্যায়ক্রমে এ রোগ নির্মুল করা সম্ভব হবে। সাধারণ মানুষের মনের ভয়ভীতি ও দূর হবে।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ