গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে যুক্তরাজ্যের সাসেক্স আওয়ামী লীগের সভা

প্রকাশিত: ১০:০১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৪, ২০২০

গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে যুক্তরাজ্যের সাসেক্স আওয়ামী লীগের সভা

ছাতক প্রতিনিধিঃ : ২৩শে আগষ্ট ২০২০ রোজ রবিবার যুক্তরাজ্যের সাসেক্স আওয়ামীলীগ কর্তৃক ২০০৪ সালের ২১শে আগষ্ট বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ-এর সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশে ভয়াবহ গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে এবং বেগম খালেদা জিয়াকে বিচারের আওতায় নিয়ে আসার দাবিতে ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় ।

সাসেক্স আওয়ামীলীগ-এর সভাপতি ইমানুজ্জামান মহির সভাপতিত্বে সঞ্চালনা করেন সাসেক্স আওয়ামীলীগ-এর ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল আলীম।

প্রধান অতিথি ছিলেন যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ-এর সভাপতি জনাব সুলতান শরীফ, প্রধান আলোচক ছিলেন যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ-এর সাধারণ সম্পাদক জনাব সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক, যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ-এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জনাব আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, সিলেট জেলা আওয়ামীলীগ-এর সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন চৌধুরী, সুনামগন্জ জেলা আওয়ামীলীগ-এর সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এনামুল কবির ইমন, হবিগন্জ জেলা আওয়ামীলীগ-এর সাধারণ সম্পাদক জনাব আলমগীর চৌধুরী,যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ-এর শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক জনাব এস,এম সুজন, যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ-এর কার্যকরী কমিটির সদস্য জনাব আশরাফুল ইসলাম ।
সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাসেক্স আওয়ামীলীগ-এর সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক জনাব মুইজুর রহমান শামীম।
আরও উপস্থিত ছিলেন এবং বক্তব্য রাখেন সাসেক্স আওয়ামীলীগ-এর সিনিয়র সহসভাপতি জনাব সৈয়দ ফরিদ আলী, সহসভাপতি জনাব আব্দুল কাইয়ূম, সহসভাপতি জনাব জনাব বদরুল হক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জনাব মিজানুর রহমান পাটোয়ারী, সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব সানাওয়ার আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব মোহাম্মদ ভূইয়া তাপস (প্রচারণার দায়িত্বপ্রাপ্ত), কোষাধ্যক্ষ জনাব সুরত আলী, প্রবীণ সদস্য জনাব ফারুক আহমদ. গ্রেটার সাসেক্স যুবলীগের সভাপতি ফয়সল আম্বিয়া টিটু, সাধারণ সম্পাদক জনাব কয়েস আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব মনিরুজ্জামান রয়েল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জনাব ফয়সল আহমদ.সাসেক্স যুবলীগের সভাপতি জনাব সাহেদ আহমদ মুসা, সাধারণ সম্পাদক জনাব সালাম বক্স, সহসভাপতি সিতু কামালী সহ আরও অনেকেই।
বক্তারা বলেন, ২১ আগস্টের সেই রক্তাক্ত ঘটনায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন ১৬ জন। পরে নিহতের সংখ্যা দাঁড়ায় ২৪ জনে। নারী নেত্রী আইভি রহমান ৫৮ ঘণ্টা মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে ২৪ আগস্ট মারা যান। আহত প্রায় দেড় বছর মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে ঢাকা নগন পিতা মেয়র মোহাম্মদ হানিফ।
আহত ৫ শতাধিক নেতাকর্মী দেহে স্প্লিন্টার নিয়ে, হাত-পা-চোখ হারিয়ে জীবন্মৃত অবস্থায় অভিশপ্ত জীবন কাটাচ্ছেন। অসংখ্য নেতাকর্মীকে চিরদিনের জন্য বরণ করতে হয়েছে পঙ্গুত্ব, অন্ধত্ব। তাদের কেউ কেউ আর স্বাভাবিক জীবন ফিরে পাননি।
বীভৎস ওই হামলার ঘটনায় দেশে-বিদেশে গভীর উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা সৃষ্টি করলেও বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে মামলাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে এবং আলামত নষ্ট করার নানা চক্রান্ত প্রত্যক্ষ করেছে দেশবাসী।
তবে এই ভয়াল ও নারকীয় এই হত্যাযজ্ঞের ঘটনায় তৎকালীন বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার যে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত তা সময়ের ব্যবধানে দেশবাসীর সামনে প্রকাশ পেয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ