ছাতকে নারী নির্যাতন মামলার আসামী মাসুদ ধরা ছোয়ার বাইরে

প্রকাশিত: ১২:৫৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩১, ২০২১

ছাতকে নারী নির্যাতন মামলার আসামী মাসুদ ধরা ছোয়ার বাইরে

 তমাল পোদ্দার, ছাতকঃ ছাতকে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে দায়েরী মামলার আসামী দেড়মাস ধরে রয়েছে ধরা ছোয়ার বাইরে। বিবাদী গ্রেফতার না হওয়ায় অভিযোগ উঠেছে থানা পুলিশের দিকে। এদিকে গ্রামের একটি মহল মামলাটি ধামাচাপা দিয়ে আসামীকে রক্ষা করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। জানা যায়, উপজেলার নোয়ারাই ইউনিয়নের বাতিরকান্দি এলাকার এক অসহায় ষোড়শীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ঘর থেকে পালিয়ে নিয়ে আসে মাসুদ আহমদ। সে শহরের শ্যামপাড়া এলাকার প্রবাসী আনোয়ার হোসেনের পুত্র। ঘটনার পরদিন ১৩ জুন ষোড়শীর চাচা আব্দুস শহিদ এ ব্যাপারে ছাতক থানায় একটি জিডি নং-৬৩১ করেন। ১৬ জুন পেপারমিল এলাকার একটি চায়ের দোকানে ষোড়শীকে নিয়ে আসে মাসুদ। এসময় স্থানীয়দের সন্দেহ হলে ষোড়শীকে স্থানীয় সোনা মিয়ার জিম্মায় রাখা হয়। খবর পেয়ে আব্দুস শহিদ তার ভাতিজিকে বাড়িতে নিয়ে যান। এ ঘটনার পর থেকেই মাসুদ রহস্যজনক ভাবে পলাতক রয়েছে। ১৮ জুন ভিকটিমের চাচা আব্দুস শহিদ বাদী হয়ে মাসুদ আহমদের বিরুদ্ধে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী-২০০৩) এর ৭/৯(১)/৩০ ধারায় একটি মামলা (নং-১৫) দায়ের করেন। ঘটনার প্রায় দেড় মাস অতিবাহিত হলেও পুলিশ আসামীকে গ্রেফতার করতে পারছে না। ওই কারনে মামলার বাদী শংকিত হয়ে পড়েছেন। ভিকটিমের বক্তব্য বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছে মাসুদ। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই দিপঙ্কর বিশ্বাস জানান, মাসুদ আহমদ পলাতক। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। ##

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ