ছাতকে হামলা ও লুটপাটের ঘটনায় মামলা

প্রকাশিত: ৮:১০ অপরাহ্ণ, জুলাই ৮, ২০২০

ছাতকে হামলা ও লুটপাটের ঘটনায় মামলা

ছাতক প্রতিনিধি: ছাতকে প্রতিপক্ষের হামলা, লুটপাটের ঘটনায় ১০ জনকে অভিযুক্ত করে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। উপজেলার সিংচাপইড় ইউনিয়নের কামারগাঁও গ্রামের পীরবাড়ির মৃত উকিল আলীর পুত্র রুবেল আহমদ ওরপে শাহ বখত বাদী হয়ে গত ৫ জুলাই থানায় এ মামলা ( নং-৮) দায়ের করেন। মামলায় একই গ্রামের আবাছ আলীর পুত্র তৌরিছ আলী, তাজ উদ্দিনের পুত্র লালু মিয়া ও ইসলাম উদ্দিন, মৃত বাহরাম আলীর পুত্র ফটিক মিয়া, মৃত আছদ্দর আলীর পুত্র সইরত, সইরত আলীর পুত্র রুহুল আমীন, ছুরত আলীর পুত্র রাহিম, ফটিক মিয়ার পুত্র জুয়েল মিয়া, আবাছ আলীর কন্যা রাছনা বেগম এবং সইরত আলীর পুত্র বদরুলকে আসামী করা হয়।

জানা যায় ২ জুলাই দুপুরে গ্রামের তাজ উদ্দিনের পুত্র লালু মিয়া ও সইরত আলীর পুত্র রুহুল আমীন মামলার বাদি রুবেল আহমদ ওরপে শাহ বখতের বন্যায় প্লাবিত বাড়ির পুকুর পাড়দিয়ে নৌকা নিয়ে যাবার সময় পুকুর ঘাটে থাকা মহিলাদের উদ্দেশ্য করে অশ্লীল কথা বার্তা বলে।এসময় শাহ বখত তাদের অশালিন আচরণের প্রতিবাদ করলে ঝগড়ার সুত্রপাত হয়। এক পর্যায়ে রুহুল ও লালুর পক্ষ নিয়ে আরো কয়েক জন দেশীয় অস্ত্র দিয়ে শাহ বখতের উপর হামলা চালিয়ে তাকে আহত করে। হামলাকারীদের হাত থেকে বাঁচাতে শাহ বখতের মা তাহমিনা বেগম, স্ত্রী তাসলিমা বেগম, কন্যা ফাহমিদা বেগম, বোন শারমিন বেগম ও রাহেনা বেগম, ফুফু নার্গিস বেগমসহ পরিবারের লোকজন এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা তাদের উপর ও হামলা চালিয়ে আহত করে। ভয়ে নারীরা বসতঘরে আশ্রয় নিতে গেলে তাদের ধাওয়া করে হামলাকারীরা টানা হেঁছড়া করে তাদের শ্লীলতাহানি ঘটিয়ে স্বর্ণালঙ্কার, মোবাইল সেটসহ মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সোহেল রানা জানান, মামলাটি তদন্তাধিন আছে এবং আসামীদের গ্রেফতারের জন্য চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ