জগন্নাথপুরে হাওর রক্ষা বেড়ীবাঁধ ভেঙ্গে মাছ ধরার উৎসব

প্রকাশিত: ১২:৪১ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০১৯

জগন্নাথপুরে হাওর রক্ষা বেড়ীবাঁধ ভেঙ্গে মাছ ধরার উৎসব

সিল-নিউজ বিডি-ডেস্ক :: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার চিলাউড়া-হলদিপুর ইউনিয়নের নলুয়া হাওরের বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে মাছ ধরা হচ্ছে উৎসব দেখা গেছে। হুমকির মুখে রয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়ীবাঁধ সমূহ।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, চিলাউড়া-হলদিপুর ইউনিয়নের নলুয়া হাওরের কুমারখালি নামক স্থানে কার্তিক মাসের শুরু থেকে একদল অসাধু ব্যক্তি হাওর রক্ষা বাঁধ ভেঙ্গে মাছ ধরছেন। উপজেলার বৃহত্তম শস্যভাণ্ডার নলুয়ার হাওর হাজার হাজার মানুষের পরিশ্রমে প্রত্যেক বছর সোনালী ফসল ঘরে তুলেন। কিন্তু বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছেন এসব ব্যবসায়ী কুশিয়ারা নদী ও সুরমা নদী থেকে আসা পলি মাটিতে ফসলি জমি ক্ষতি সাধন হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

বেড়ীবাঁধে মাছ ধরতে থাকা লোকদের সাথে আলাপ করে জানা যায়, তারা দিরাই উপজেলার টংগর গ্রামের সমসু মিয়া একই গ্রামের আর দুইজন পানি উন্নয়ন বোর্ডের ১১, ১৩ ও ৮৩নং পিআইসির বেড়ীবাঁধের ভাঙ্গা স্থানে মৌখিক ভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বলে মাছ ধরছেন বলে জানান।

স্থানীয় কৃষকদের সাথে আলাপ করে জানা যায়, হাওরের ধানের পাশাপাশি মাছ ধরে অনেকেই জীবিকা নির্বাহ করে থাকেন। কিছু অসাধু ব্যক্তি বেশী মুনাফার আশার হাওর রক্ষা বাঁধ ভেঙ্গে মাছ ধরে আগামী বছরের হাজার হাজার হেক্টর ফসলি জমি হুমকির মুখে ফেলে দিচ্ছেন। পাশাপাশি নদী থেকে আসা পলি মাটিতে ফসলি জমি ভরে যাচ্ছে। যদিও অসাধু ব্যবসায়ীরা মাছ বিক্রি করে ৫ থেকে ৬ লক্ষ টাকার আয় করেন থাকেন, এসব বেড়ীবাঁধ মেরামত করতে প্রায় ১০ থেকে ১৫ লক্ষ টাকা খরচ হবে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম মাসুম বলেন, আমি মৌখিক ভাবে কাউকে অনুমতি দেই নাই। খবর পেয়েছি বেড়ীবাঁধ ভেঙ্গে মাছ ধরা হচ্ছে। থানা পুলিশকে বলে দিয়েছি বিষয়টি দেখার জন্য। এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের ফেইসবুক পেইজ