“জল-জোছনার শহর” নামকরণের স্বপ্নদ্রষ্টা, সময়ের আলোচিত কলামিস্ট-রাজনৈতিক বিশ্লেষক : পীর_হাবিবুর_রহমান

প্রকাশিত: ১২:০৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০১৯

“জল-জোছনার শহর” নামকরণের স্বপ্নদ্রষ্টা, সময়ের আলোচিত কলামিস্ট-রাজনৈতিক বিশ্লেষক : পীর_হাবিবুর_রহমান

অণীশ তালুকদার বাপ্পু :; কলম হাতে পেলেই যেন অপ্রতিরোধ্য হয়ে ওঠেন পীর হাবিব। তার সাদা কাগজের মোহনায় মিলিত হতে থাকে বাংলা অভিধানের মায়াবী শব্দ। বাংলাদেশ তথা এশিয়ার সাংবাদিকতার পরিমন্ডলে পীর হাবিবের কলম আজ সুপ্রতিষ্ঠিত।

সময়ের আলোচিত কলাম লেখক হিসেবে পীর হাবিব আজ জনপ্রিয় পাঠক মহলে। পীর হাবিবের কলাম মানেই নতুনত্ব। শব্দ নিয়ে খেলা করতে ভালোবাসেন পীর হাবিব। কখনো তীর্যকবাক্য, কখনো মায়াবী বাক্যে সমসাময়িক ঘটনাবলীর চুলছেড়া বিশ্লেষণ করেন তিনি। টিভি টকশোতে তিনি একজন দর্শকপ্রয় রাজনৈতিক বিশ্লেষক। রাজনীতির কঠিন মারপ্যাঁচ আর জটিল অংকের সমাধানে পটু পীর হাবিব রাজনীতি-সামাজিক অঙ্গনের শৈল্পিক নাম।

রাজনীতির মাঠ কাঁপানো রিপোর্টার থেকে রাজনৈতিক বিশ্লেষক, কলামিস্ট হয়ে ওঠা পাঠকপ্রিয় লেখক পীর হাবিবুর রহমান রাজনীতির জটিল গতি প্রকৃতি প্রাঞ্জল ভাষায় তুলে আনেন কলমের শৈল্পিকতায়।

সাদা কে সাদা আর কালো কে কালো বলতে মাথা নত করেন না পীর হাবিব। এই চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের জন্য তাঁর জীবনে অনেক ঝড় বয়ে গেছে। কিন্তু নৈতিক আদর্শ থেকে বিরত থাকেনি তাঁর কলম।

১৯৯৩ সালে জননন্দিত সাবেক পৌরপিতা জ্যোৎস্নাবাদী কবি মমিনুল মউদীনের নির্বাচনী জনসভার মঞ্চে পীর হাবিবুর রহমান– বক্তব্যের শুরুতেই বললেন, এই শহর কবিতার শহর,এই শহর জল-জোছনার শহর,এই শহর প্রেমের, এই শহন গানের শহর। ব্যাস যা হবার হয়ে গেলো। সেই থেকে সুনামগঞ্জের নামের পূর্বে উপমা যুক্ত হয়ে গেলো এই শব্দগুলো।

#জল_জোছনার_শহর_প্রসঙ্গে_পীর_হাবিবুর_রহমান বলেন—

#সুনামগঞ্জকে জল জোছনার শহর,কবিতা ও গানের শহর,আড্ডা ও প্রেমের শহর, আমি দেশ বিদেশের মানুষের কাছে পরিচিত করিয়েছিলাম দিনের পর দিন লিখে। এ নামগুলো প্রথম ১৯৯৩ সালে মউজদীন ভাইর নির্বাচনে বক্তৃতায় বলি,পরে জাতীয় পত্রিকায় অবিরাম লিখে সুনামগঞ্জে মানুষকে ভ্রমনে আমন্ত্রন জানাই এবং সফল হই। প্রেমের শহর বলতে আমি মানুষে মানুষে বন্ধন,ধর্মীয় সম্প্রীতির চেয়ে সবার আত্নিক সম্পর্কটাই বড় করে ব্যাখ্যা করেছিলাম।”

#জুবিলীর_স্মৃতিচারণঃ ২০১২

জুবিলীর ১২৫ বছর উদযাপন উৎসব ২০১২। সুরমার তীরঘেঁষে জুবিলীর মাঠ প্রাক্তন জুবিলীয়ানদের জনসমুদ্র। মঞ্চে বক্তব্য দিতে আসছেন একের পর এক প্রাক্তন জুবিলীয়ান তারকা ব্যক্তিত্ব। শব্দ-বাক্যে মুখরিত উৎসবস্থল। একসময় মঞ্চে আসলেন সুনামগঞ্জের আলোক সন্তান গর্বিত জুবিলীয় এবং বাংলাদেশের সংবাদিকতার অমৃতপুত্র কলম সৈনিক পীর হাবিবুর রহমান।

প্রস্তুত মাইক্রোফোন। ৪৫ মিনিটের নান্দনিক বক্তব্যে শোনালেন জুবিলীর স্মৃতিগাঁথা অমরকাব্য। মন্ত্রমুগ্ধ জুবিলীয়ানদের কারো চোখে তখন অশ্রুজল, কেউ বা আবার ফিরে গিয়েছিলেন অতীতের স্মৃতির মহলে, কেউ বা নিস্তব্দ হয়ে ক্ষণিকের জন্য নস্টালজিয়ায় আক্রান্ত।

পীর হাবিবের শব্দবানে সকলের হৃদয়ে তখন কাল বৈশাখীর ঝড় বইছে। দুহাত প্রসারিত করে বলেছিলেন পুরোনো কাঠের ব্লকের অবকাঠামোর সাথে জুবিলীয়ানদের রক্ত মিশে আছে-প্রেম মিশে আছে-শাসন মিশে অাছে-পায়ের দপদপ শব্দ মিশে আছে। জুবিলীর ঐতিহ্য মুছে ফেলবেন না। সেদিন পীর হাবিবের বক্তব্য শোনে নিজের অজান্তে কেঁদেছিলাম। প্রতিটি শব্দ যেন একটি অনবদ্য কবিতা।

#একজন_পীর_হাবিবুর_রহমান

জন্ম: ১২ নভেম্বর ১৯৬৩
বাবা: মরহুম রইস আলী পীর
মাতা: মরহুমা সৈয়দা রহিমা খানম
শিক্ষাগত যোগ্যতা : রাষ্ট্রবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর।
সাংবাদিকতার হাতেখড়ি : ১৯৮৪ সালে মতিহার ক্যাম্পাসে সাংবাদিকতার হাতেখড়ি।

#কারাবরণ:

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা পীর হাবিবুর রহমান ১৯৮৫ সালে সেনা শাসনামলে কারাবরণ করেন।

#সাংবাদিকতার_বর্ণিল_জীবনঃ

১৯৯২ সাল থেকে বাংলাবাজার পত্রিকা, ১৯৯৯ সালে যুগান্তরের নির্মান বিনির্মাণ পর্বে রাজনৈতিক রিপোর্টার হিসেবে খ্যাতি লাভ করেন। অনুসন্ধিৎসু পাঠকের তৃষ্ণা নিবারণ করেছেন আলোচিত সব খবর দিয়ে। ১/১১ আমাদের সময়ে আলোচিত কলামিস্ট হিসেবে নিজেকে উন্মোচিত করেন পাঠক মহলে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষক হিসেবে তার সাহিত্যের রসবোধতার এক একটি কলাম ভাষাশৈলিতে পাঠককে নিয়ে যায় চিন্তার জগতে। আমাদের সময়ে কিছুদিন উপ-সম্পাদক পদে কাজ করেছেন। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ প্রতিদিনের নির্বাহী সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। একসময় তিনি তরুণ প্রজন্মের আলোচিত পূর্বপশ্চিম বিডি নিউজের প্রধান সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

তাঁর হাতে শব্দ বাজে ঘুঙুরের মতো। রাজনীতির বিষয়ের বাইরে কয়েকটি উপন্যাসও রয়েছে তাঁর। তাড়াহুড়ো, অস্থিরতা কবি নজরুলের মতো তার চরিত্রের অংশ। অনেকটা শেষ মুহুর্তের ব্যাগ গুছানোর মতো তাঁর স্বভাব।

গতবছরের একুশের বই মেলায় প্রকাশিত হয়েছে তাঁর একটি উপন্যাস। অনিরুদ্ধ ও মাধবী, মধ্য বয়সী প্রেমিকযুগলের কথোপকথনে লিখেছেন ‘জেনারেলের কালো সুন্দরী’ উপন্যাস। নির্মোহ সত্যের ওপর মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস উঠে এসেছে এ উপন্যাসে।

#পীর_হাবিবের_প্রকাশিত_উপন্যাস :

জেনারেলের কালো সুন্দরী
মান্দিরা
ভিউজ আনকাট
পোয়েট অব পলিটিক্স
অব দ্য রেকর্ড
খবরের বারান্দা
টক অব দ্য প্রেস ( আমাদের সময়ের যুক্তি-বিতর্ক)

একজন পীর হাবিব আমাদের আলোকিত সন্তান, আমাদের অহংকার। সুনামগঞ্জের সন্তান হিসেবে তাঁকে নিয়ে আমরা গর্বিত। পীর হাবিবের কলম যুদ্ধে আমরাও সহযোদ্ধা হতে চাই। হতে চাই ” জুনিয়র পীর হাবিব’।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের ফেইসবুক পেইজ