‘জাফরুল্লাহ সবচেয়ে ডিফিকাল্ট পেশেন্ট’

প্রকাশিত: ১২:০২ অপরাহ্ণ, জুন ২৬, ২০২০

‘জাফরুল্লাহ সবচেয়ে ডিফিকাল্ট পেশেন্ট’

অনলাইন ডেস্ক ::

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে নিজের ৩৫ বছরের চিকিৎসা জীবনে সবচেয়ে ডিফিকাল্ট পেশেন্ট বলে উল্লেখ করেছেন তার চিকিৎসক ডা. মামুন মোস্তাফি।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ধানমণ্ডিতে গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের গেরিলা কমান্ডার মেজর এটিএম হায়দার বীরউত্তম মিলনায়তনে এক আলোচনাসভায় তিনি এ কথা বলেন। জাফরুল্লাহ চৌধুরীর করোনা রোগমুক্তি উপলক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়।

সদ্য করোনা জয় করা প্রবীণ এ মুক্তিযোদ্ধার চিকিৎসক মামুন মোস্তাফি বলেন, আমি তার চিকিৎসা করার সুযোগ পেয়ে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি। ডায়ালাইসিস রোগীদের করোনা হলে চিকিৎসা দেয়ার মতো হসপিটাল বাংলাদেশে নেই। তবে এখানে বড় ভাই (জাফরুল্লাহ) ডায়ালাইসিস রোগীদের করোনা চিকিৎসার জন্য আইসিইউসহ সুযোগসুবিধা সম্পন্ন একটি ইউনিট তৈরি করেছেন।

ডা. মামুন মোস্তাফি আরও বলেন, গ্রামের একজন মানুষ ও কৃষক যে সেবা নিতে পারেন না, তিনি তা গ্রহণ করেন না। ওনার করোনা বিজয়ী হওয়ার পেছনে সবচেয়ে বড় হলো তার মনোবল।

জাফরুল্লাহ চৌধুরীর করোনা নেগেটিভ হলেও বুকের ৮০ শতাংশ নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা ঢাকা মেডিকেলে তার জন্য কেবিন রেডি করেছিলাম। কিন্তু তিনি বলে দিয়েছেন– ওখানে থেকে আমার গ্রামের একজন মানুষও চিকিৎসা নিতে পারবে না, আমিও নেব না। গ্রামের কোনো মানুষের এখানে থেকে মৃত্যু হলে আমারও হবে।

বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের সঙ্গে ডা. জাফরুল্লাহর যে একাত্মবোধ তা আর কারও মাঝে দেখেননি উল্লেখ করে ডা. মোস্তাফি বলেন, তার প্রতি দেশের মানুষের যে ভালোবাসা ছিল, তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেখা যায়। প্রতিটা মানুষের দোয়া ছিল আল্লাহ তুমি এই মানুষটিকে বাঁচিয়ে রাখো।

এ সময় ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, সম্ভবত আমি বাংলাদেশের সবচেয়ে ভাগ্যবান করোনা রোগী। সবাইকে জানাই আমার এবং গণস্বাস্থ্য পরিবারের অফুরন্ত কৃতজ্ঞতা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার শুভেচ্ছা আমার দ্রুত রোগমুক্তিতে সহায়ক হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এ সময় বক্তব্য রাখেন গণস্বাস্থ্য মেডিকেল কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল অধ্যাপক মুহিব উল্লাহ খোন্দকার, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, অনলাইন ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন বিনায়ক সেন, অধ্যাপিকা দিলারা চৌধুরী, অধ্যাপক আসিফ নজরুল, সৈয়দা রিজাওয়ানা হাসান, জোনায়েদ সাকী, ভিপি নূর। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন মুক্তিযোদ্ধা সাদেক খান। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দফতর প্রধান জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ