জাফলং পর্যটন স্পটের অব্যবস্থাপনা রোধে মাঠে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিলুর

প্রকাশিত: ১০:২০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২০, ২০২১

জাফলং পর্যটন স্পটের অব্যবস্থাপনা রোধে মাঠে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিলুর

নিজস্ব প্রতিবেদক গোয়াইনঘাট
প্রকৃতি কন্যা হিসাবে সারাদেশে এক নামে পরিচিত সিলেটের জাফলং।খাসিয়া জৈন্তা পাহাড়ের পাদদেশে অবস্থিত জাফলং প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপরুপলীলাভূমি। পিয়াইন নদীর তীরে স্তরে স্তরে বিছানো পাথরের স্তূপ জাফলংকে করেছে আকর্ষণীয়। সীমান্তের ওপারে ইন্ডিয়ান পাহাড় টিলা, ডাউকি পাহাড় থেকে অবিরামধারায় প্রবাহমান জলপ্রপাত, ঝুলন্ত ডাউকি ব্রীজ, পিয়াইন নদীর স্বচ্ছ হিমেলপানি,উঁচু পাহাড়ে গহিন অরণ্য ও শুনশান নিরবতার কারণে এলাকাটি পর্যটকদের দারুণভাবে মোহাবিষ্ট করে। এসব দৃশ্যপট দেখতে প্রতিদিনই দেশী-বিদেশীপর্যটকরা ছুটে আসেন এখানে। প্রকৃতি কন্যা ছাড়াও জাফলং বিউটি স্পট, পিকনিকস্পট, সৌন্দর্যের রাণী- এসব নামেও পর্যটকদের কাছে ব্যাপক পরিচিত। ভ্রমনপিয়াসীদের কাছে জাফলং এর আকর্ষণই যেন আলাদা। সিলেট ভ্রমনে এসে জাফলং নাগেলে ভ্রমনই যেন অপূর্ণ থেকে যায়।

জাফলংয়ে শীত ও বর্ষা মওসুমের সৌন্দর্যের রুপ ভিন্ন। বর্ষায় জাফলংএর রুপ লাবণ্য যেন ভিন্ন মাত্রায় ফুটে উঠে। ধূলি ধূসরিত পরিবেশ হয়ে উঠেস্বচ্ছ। স্নিগ্ধ পরিবেশে শ্বাস-নি:শ্বাসে থাকে ফুরফুরে ভাব। খাসিয়া পাহাড়েরসবুজাভ চূড়ায় তুলার মত মেঘরাজির বিচরণ এবং যখন-তখন অঝোরধারায় বৃষ্টিপাহাড়ি পথ হয়ে উঠে বিপদ সংকুল-সে যেন এক ভিন্ন শিহরণ। সেই সঙ্গে কয়েক হাজারফুট উপর থেকে নেমে আসা সফেদ ঝর্ণাধারার দৃশ্য যে কারোরই নয়ন জুড়ায় মায়াবী ঝর্ণা। সেই নান্দনিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি জাফলংয়ের সৌন্দর্য নিমিষেই ম্লান হয়ে যায় এখানকার অব্যবস্থাপনা দেখে।

বুধবার (২০ অক্টোবর) বিকাল ৫ টায় গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিলুর রহমান, জাফলং সাব-জোন এর ইউনিট ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক রতন শেখকে নিয়ে জাফলং পর্যটন কেন্দ্রের বিভিন্ন স্পট পরিদর্শন করেন। জাফলং আগত পর্যটক ও দর্শনার্থীদের যাতায়াতের পথে যত্রতত্র দোকান বসিয়ে পরিবেশ নোংরা হওয়ায় ইউএনও তাহমিলুর রহমান অসন্তোষ প্রকাশ করেন। বল্লাঘাট হইতে জিরো পয়েন্ট, জিরো পয়েন্ট থেকে সংগ্রাম পুঞ্জি বিজিবি পয়েন্ট পর্যন্ত একই অবস্থা দেখাতে পান।
বিষয়টি নিয়ে ইউএনও তাহমিলুর রহমান তাৎক্ষণিক ” জাফলং ভিউ রেস্টুরেন্টে” বসে ব্যবসায়ীদের নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে, স্পটে দোকানপাট কিভাবে বসবে সেই জায়গা নির্ধারণ সহ ছক তৈরি করে প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) পরিমল চন্দ্র দেব, গোয়াইনঘাট প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন। ব্যবসায়ী সমিতির নেতা হোসেন মিয়া, আলমগীর, ওমর সানী, শাহআলম সহ আরো অনেকে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ