জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম সরকারি কলেজের অধ্যক্ষের অবসরজনিত বিদায় সংবর্ধণা

প্রকাশিত: ৯:২৩ অপরাহ্ণ, জুন ৩০, ২০২০

জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম সরকারি কলেজের অধ্যক্ষের অবসরজনিত বিদায় সংবর্ধণা

স্বপন দেব, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ তৈয়বুন্নেছা খানম সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অরুণ চন্দ্র াস অবসর গ্রহণ করেছেন। ২৯ জুন সোমবার এই কলেজে শেষ কার্যবিসের মাধ্যমে উনার কর্মক্ষেত্রের সমাপ্তি ঘটে।
২০১২ সালের ১৯ জুলাই তিনি জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেন।এর আগে তিনি বড়লেখা সরকারী কলেজের অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হিসেবে ীর্ঘনি কর্মরত ছিলেন।অরুন চন্দ্র াস শিক্ষা জীবনে নিজ বাড়ি সুনামগন্জের রিাই উপজেলার রাঙামাটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৫ম শ্রেণী পাস করে দিরাই হাই স্কুল থেকে মাধ্যমিক পাস করেন। তারপর মদনমোহন কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষার শেষে সিলেট এমসি কলেজ থেকে অর্থনীতিতে অনার্স পাস করে চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।
জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম সরকারি কলেজে যোগদানের পর কলেজের শিক্ষার মান উন্নয়ন, নতুন একাডেমীক ভবন স্থাপন সহ বিভিন্ন কাজ করে গেছেন। উনার হাত ধরেই ২০১২-১৪ শিক্ষা বর্ষ থেকে অত্র কলেজে বাংলা ও সমাজবিজ্ঞান এবং ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষ থেকে ইংরেজি এই ৩ টি বিষয়ে অনার্স চালু হয়। ২০১৭ সালে বর্তমান সরকার সারাদেশের প্রত্যেক উপজেলায় একটি করে কলেজে কে সরকারীকরনের আওতায় নিয়ে আসলে জুড়ী কলেজ সরকারি করন হয়।কলেজের নিজস্ব তহবিল থেকে দ্বিতলা একটি একাডেমীক ভবন নির্মাণ করার পর ও বর্তমানে কলেজের তহবিলে প্রায় ১ কোটি ৫২ লক্ষ টাকা জমা রয়েছে। যার কৃতিত্বের ও অংশীদার তিনি।

তিনি বলেন, শিক্ষকতা মহান পেশা। সেই পেশায় আমি আমার জীবনটা কাটিয়েছি এতটুকুই আমার স্বার্থকতা। এই কলেজ এবং আমার অতীতের কর্মস্থল বড়লেখা সরকারি কলেজসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আমার ছাত্রছাত্রী যারা আছে সবাই যেন আমার জন্য দোয়া আর্শীবাদ করেন এই প্রত্যাশা।জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম সরকারি কলেজের অধ্যক্ষের অবসরজনিত বিদায় সংবর্ধণা
স্বপন দেব, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ তৈয়বুন্নেছা খানম সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অরুণ চন্দ্র াস অবসর গ্রহণ করেছেন। ২৯ জুন সোমবার এই কলেজে শেষ কার্যবিসের মাধ্যমে উনার কর্মক্ষেত্রের সমাপ্তি ঘটে।
২০১২ সালের ১৯ জুলাই তিনি জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেন।এর আগে তিনি বড়লেখা সরকারী কলেজের অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হিসেবে ীর্ঘনি কর্মরত ছিলেন।অরুন চন্দ্র াস শিক্ষা জীবনে নিজ বাড়ি সুনামগন্জের রিাই উপজেলার রাঙামাটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৫ম শ্রেণী পাস করে দিরাই হাই স্কুল থেকে মাধ্যমিক পাস করেন। তারপর মদনমোহন কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষার শেষে সিলেট এমসি কলেজ থেকে অর্থনীতিতে অনার্স পাস করে চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।
জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম সরকারি কলেজে যোগদানের পর কলেজের শিক্ষার মান উন্নয়ন, নতুন একাডেমীক ভবন স্থাপন সহ বিভিন্ন কাজ করে গেছেন। উনার হাত ধরেই ২০১২-১৪ শিক্ষা বর্ষ থেকে অত্র কলেজে বাংলা ও সমাজবিজ্ঞান এবং ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষ থেকে ইংরেজি এই ৩ টি বিষয়ে অনার্স চালু হয়। ২০১৭ সালে বর্তমান সরকার সারাদেশের প্রত্যেক উপজেলায় একটি করে কলেজে কে সরকারীকরনের আওতায় নিয়ে আসলে জুড়ী কলেজ সরকারি করন হয়।কলেজের নিজস্ব তহবিল থেকে দ্বিতলা একটি একাডেমীক ভবন নির্মাণ করার পর ও বর্তমানে কলেজের তহবিলে প্রায় ১ কোটি ৫২ লক্ষ টাকা জমা রয়েছে। যার কৃতিত্বের ও অংশীদার তিনি।

তিনি বলেন, শিক্ষকতা মহান পেশা। সেই পেশায় আমি আমার জীবনটা কাটিয়েছি এতটুকুই আমার স্বার্থকতা। এই কলেজ এবং আমার অতীতের কর্মস্থল বড়লেখা সরকারি কলেজসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আমার ছাত্রছাত্রী যারা আছে সবাই যেন আমার জন্য দোয়া আর্শীবাদ করেন এই প্রত্যাশা।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ