জৈন্তাপুরে বইছে নির্বাচনী হাওয়া-চিকনাগুল ইউপিতে আলোচনায় ৯ প্রার্থী

প্রকাশিত: ৬:২৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২১

জৈন্তাপুরে বইছে নির্বাচনী হাওয়া-চিকনাগুল ইউপিতে আলোচনায় ৯ প্রার্থী

জৈন্তাপুর প্রতিনিধিঃঃ সময় ঘনিয়ে আসছে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের। তফসিল অনুযায়ী চলতি বছরের মার্চের তৃতীয় সপ্তাহের আগে ইউপি নির্বাচন শুরু করতে হবে, আর শেষ করতে হবে জুনের আগেই। এরই প্রেক্ষিতে সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলায় আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বইছে আগাম নির্বাচনী হাওয়া। আর এবার নির্বাচনে প্রার্থীতার দৌড়ে প্রবীনদের সাথে আছেন একাধিক নতুন মুখ। যার অধিকাংশই তরুণ। আর প্রবীণদের সাথে নতুনের আগমনের বার্তা বেশ আগ্রহ যোগাচ্ছে স্থানীয়দের মনে। তাইতো নির্বাচনের দিন তারিখ ঘোষণা না হলেও চায়ের দোকানে দোকানে বইছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে বিশ্লেষণ। নড়েচড়ে উঠেছেন চেয়ারম্যান ও সদস্য পদের সম্ভাব্য প্রার্থীরা। অনেক চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থী ইতিমধ্যে আগাম প্রচার-প্রচারণা শুরু করে দিয়েছেন। বাড়ি বাড়ি কুশল বিনিময়ও করছেন অনেকেই। প্রচার-প্রচারণা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও চলছে সমানতালে। তবে এখনও নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না হলেও ইতিমধ্যে নির্বাচন ঘিরে ইউনিয়ন পরিষদগুলোতে প্রার্থীদের ব্যাপক দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়েছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, নির্বাচনকে সামনে রেখে উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নেই প্রার্থীতার জানান দিচ্ছেন একাধিক প্রার্থী। প্রতিটি ইউনিয়নেই দেশের প্রধান দুই রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী একাধিক সম্ভাব্য প্রার্থী। তবে এবছর নবীন-তরুণদের প্রার্থীতার ঘোষণা চোখে পড়ার মতো। দলীয় সমর্থন পেতে একই ইউনিয়নে নবীন-প্রবীণ একাধিক প্রার্থীর পক্ষ থেকে চলছে নানারকম তদবির, রাজনৈতিক কার্যালয়গুলোও সরগরম হয়ে উঠেছে। দলীয় সমর্থন পাওয়ার জন্য তৎপর হয়ে উঠেছেন ওইসব ইউনিয়নের সম্ভাব্য প্রার্থীরা। সম্ভাব্য প্রার্থীদের কেউ কেউ এলাকার ভোটারদের মাঝে দিচ্ছেন আগাম প্রতিশ্রুতি। এছাড়াও নানা রকম কৌশল অবলম্বন করে ভোটের মাঠ নিজেদের অনুকূলে নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন অনেকেই। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের সর্বসাধারণের সঙ্গে আলাপ করে জানা যায়, ইউনিয়নের সম্ভাব্য প্রার্থীরা ইতোমধ্যে অনেকটাই দৃশ্যমান। প্রার্থীরা এখন মৃত ব্যক্তির জানাজা, বিয়ের আসরে, সামাজিক বিভিন্ন আচার অনুষ্ঠানে, এলাকার খেলাধুলার অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানে রাজনৈতিক কর্মতৎপরতার মাধ্যমে জনগণের কাছাকাছি থাকার চেষ্টা করছেন। সর্বপরি ঊর্ধ্বতন নেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণের মাধ্যমে নিজের পক্ষে দলীয় নমিনেশন নেয়ার আকাঙ্খায় ব্যস্ত রয়েছেন।নির্বাচনের জন্য ইতোমদ্যে প্রচার প্রচারণা শুরু করেছেন। এদিকে উপজেলার অন্য ইউনিয়ন গুলোর মধ্যে ৬নং চিকনাগুল এখন পর্যন্ত মাঠ পর্যায়ে চেয়ারম্যান পদে আলোচনায় রয়েছেন ৯জন। তাদের মধ্যে ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠাকালী সময় থেকে এখন পর্যন্ত ইউপি সদস্য পদে দায়িত্বে রয়েছেন ফয়জুল হাসান ব্যপকভাবে প্রচারণা চালাচ্ছেন তিনি আওয়ামীলীগের দলীয় নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করতে চান । প্রতিষ্টাকালীন দুই বারের সাবেক চেয়ারম্যান এ.বি. এম জাকারিয়া তিনি গত সাপ্তাহে নিজ এলাকায় এক মতবিনিময় সভার মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা শুরু করেছেন তিনি বিএনপি থেকে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করতে মাঠে কাজ করছেন। প্রতিষ্টাকালী আরেক ইউপি সদস্য হাফেজ আব্দুল মুছাব্বির ফরিদ তিনি একটানা দুই বার ইউপি সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন গত নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হয়ে এলাকাবাসীর অনুরোধে বর্তমান চেয়ারম্যান কে সমর্থন দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাড়ান তবে গত মাস দুইএক আগে নিজ এলাকায় এক নির্বাচনী মতবিনিময় সভার মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে ইচ্ছে পোষণ করে প্রচার প্রচারণায় ব্যস্ত সময়পার করছে তার হয়েছে সর্বমহলে ব্যপক পরিচিত । বর্তমান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আমিনুর রশিদ গত নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে সতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে বিশাল ব্যবধানে জয়ী হন এবারে তিনি শতভাগ আশাবাদী দার দল আওয়ামীলীগ তাকে দলীয় মনোনয়ন দিবে। আলী আহমদ গত নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ের দেখা পাননি তবে এবারে তিনি আশাবাদী দলীয় মনোনয়ন পেলে তিনি বিজয়ী হবেন। সরোয়ার রহিম চৌধুরী ইউনিয়নে সর্বসাধারণের একজন পরিচিত মূখ প্রবাস জীবন কাটিয়ে নিজ জন্মভূমিতে এসে এলাকায় মানুষের কাছে একজন মানবিক মানুষ হিসেবে পরিচিত লাভ করছেন। কাজ করছেন মানুষের কল্যাণে তিনি সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করতে মাঠে কাজ করছেন। কামরুজ্জামান চৌধুরী তার রয়েছে ছাত্র রাজনীতির বন্যাট্য রাজনৈতিক পরিচয় তিনি সরকার দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী হয়ে হয়ে কাজ করছেন ইতিমধ্যে নিজ এলাকায় সভাসমাবেশ করে প্রার্থীতার জানান দিয়েছেন তার বিশ্বাস তাকে নৌকা প্রতীক দিলে এই ইউনিয়ন টি বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে উপহার দিবেন। জাহাঙ্গীর আলম তরুন সমাজ সেবক ক্রীড়া সংঘটক সদ্য প্রবাস থেকে ফিরেছেন তিনি প্রবাসে থাকালীন সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীতার জানান দিয়েছেন পাশাপাশি দেশে ফিরেই নিজ মহল্লার মসজিদে মতবিনিময় করেছেন ইউনিয়ন বাসীকে বিভিন্ন উন্নয়নের বার্তা দিচ্ছেন। শাহীন আহমদ তার পিতা মরহুম মদরিছ আলী ছিলেন বৃহত্তর ফতেহপুর ইউনিয়নের মেম্বার পিতার দেখানো পথে তিনি সমাজ সেবায় নিয়জিত রয়েছেন এবার তিনি আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন চেয়ে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়ে মাঠে কাজ করছেন। ইউনিয়ন জুড়ে তৃণমূল পর্যায়ে এখন হাট বাজার পাড়া মহল্লায় একি আলোচনা কারা পাচ্ছেন দলীয় মনোনয়ন কে হচ্ছেন আগামী চিকনাগুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ