জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় ছাত্র পরিষদের নবগঠিত কমিটির অভিষেক ও পরিচিতি সভা

প্রকাশিত: ১২:২৮ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ৩, ২০২১

জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় ছাত্র পরিষদের নবগঠিত কমিটির অভিষেক ও পরিচিতি সভা

অনলাইন ডেস্ক :: ১৯৮০ সালের ১৭ই মার্চে প্রতিষ্ঠিত বৃহত্তর জৈন্তিয়ার ঐতিহ্যবাহী সংগঠন জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় ছাত্রপরিষদের নবগঠিত কমিটির অভিষেক ও পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যা ৬টায় নগরীর একটি অভিজাত রেস্টুরেন্টে এই অনুষ্ঠান হয়।

সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি মাহফুজুল কিবরিয়া মাহফুজের সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেনের পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাকালীন যুগ্ন আহবায়ক, বর্তমান কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা এটিএম বদরুল ইসলাম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি বর্তমান কেন্দ্রীয় নির্বাহী উপদেষ্টা এডভোকেট মো. জামাল উদ্দিন, সাবেক সভাপতি ও বর্তমান উপদেষ্টা মঈনুল হোসেন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান উপদেষ্টা গিয়াস আহমদ, জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় যুব পরিষদের যুগ্ম আহবায়ক ইমাম উদ্দিন, জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় পরিষদ, জৈন্তাপুর উপজেলার আহবায়ক হানিফ মোহাম্মদ, গোয়াইনঘাট উপজেলার যুগ্ম আহবায়ক মো. লুৎফুর রাহমান, সদস্য সামছুজ্জামান, ছাত্রনেতা এম নিজাম উদ্দিন, যুবনেতা এস এম জিয়াউল হাসান ও মাওলানা আনোয়ার হোসাইন।

ছাত্র পরিষদের নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সিনিয়র সহ সভাপতি আসিফ আজহার, সহ সভাপতি জিয়াউর রহমান, বিশ্বজিৎ দাশ, এমদাদুল হক ইমদাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আল আমিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আলীম উদ্দিন, অর্থ সম্পাদক মামুনুর রশীদ, সহ বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক জাহেদুল ইসলাম, বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ বিষয়ক সম্পাদক ইমরান আহমদ।
অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- কেন্দ্রীয় সদস্য আব্দুল আজিজ, এম এ মাসুম, ইমরান আহমদ চৌধুরী, আখলাকুর রহমান জনি, সোলেমান জাহান মুন্না, জুবায়ের আহমদ, হুমায়ুন রশীদ সুমন, আসাদুর রহমান মুন্না, তানজির আহমদ, জসিম আহমদ, মনিরুজ্জামান মনির, শাহীন আহমদ, নবিন আহমদ প্রমুখ। সংগঠনের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মতিউর দুলাল ও বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ বিষয়ের সহ সম্পাদক সাব্বির রহমান সাজন এর পিতার মৃত্যুতে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির পক্ষ থেকে শোক প্রকাশ করা হয় এবং মরহুমদের আত্বার মাগফিরাত কামনা করা হয়।
জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় ছাত্রপরিষদের সাবেক নেতৃবৃন্দ বলেন, ১৭ পরগনার সালিশ কমিটির সমন্বয়ক আবুল মৌলা চৌধুরী জৈন্তিয়া ছাত্রপরিষদের কেউ নন। উনি বিগত সম্মেলনে শুধুমাত্র অতিথি ছিলেন। তারা আরো বলেন জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় ছাত্র পরিষদ ১৭ পরগনার অধীনস্থ কোন অঙ্গসংগঠন নয়। জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় ছাত্রপরিষদ স্বাধীনভাবে এবং সাংবিধানিকভাবে একটা অরাজনৈতিক ছাত্রসংগঠন যা গঠণতন্ত্রে স্পষ্ট রয়েছে। তারা আবুল মৌলা কর্তৃক স্বাক্ষরিত তথাকথিত কমিটির বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানান।তারা আরো বলেন, জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় ছাত্র পরিষদের গঠন তন্ত্রের ৮ নং ধারায় সংবিধান সংশোধন করার প্রস্তাব আলোচনা করা হয়েছে এবং এখানেই ধারা সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়েছে। তারা যোগ করেন আবুল মৌলা কর্তৃক ১০ নং ধারার যে বর্ণনা দেয়া হয়েছে, তা সম্পুর্ন ভুয়া এবং ভিত্তিহীন।
সাবেক নেতৃবৃন্দ দাবী করেন, জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় ছাত্রপরিষদের কমিটির অনুমোদন দেওয়ার এখতিয়ার আবুল মৌলা চৌধুরীর নেই, এটা সম্পুর্ণ বেআইনী। কমিটি ঘোষণা করার এখতিয়ার শুধুমাত্র সাবেক নেতৃবৃন্দের রয়েছে। তাই তারা সম্মিলিত স্বাক্ষরে কমিটি ঘোষণা দিয়েছেন। আবুল মৌলা কর্তৃক ভুয়া কমিটির অনুমোদন এর কারণে বৃহত্তর জৈন্তিয়ায় তারা তাকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ