তাহিরপুরে শিশু তোফাজ্জল হত্যাকাণ্ডে ৭ জন আদালতে

প্রকাশিত: ৬:৩৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১২, ২০২০

তাহিরপুরে শিশু তোফাজ্জল হত্যাকাণ্ডে ৭ জন আদালতে

তাহিরপুর প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে শিশু তোফাজ্জল হোসেনের অপহরণ ও হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে সাতজনকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

রোববার দুপুরে তাহিরপুর থানা থেকে তোফাজ্জলের দাদা, চাচা, ফুফুসহ সাতজনকে সুনামগঞ্জ আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এরা হলেন উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউপির সীমান্তবর্তী গ্রাম বাঁশতলার নিহত তোফাজ্জলের চাচা হাফেজ সালমান হোসেন, লোকমান হোসেন, ফুফু শিউলি আক্তার, ফুফা সেজাউল কবির, তার বাবা কালা মিয়া, হাবিবুর রহমান ও তার ছেলে রাসেল।

তাহিরপুর থানার ওসি আতিকুর রহমান জানান, পূর্ব বিরোধ ও মামলা-মোকদ্দমার জেরে তোফাজ্জল হোসেনকে হত্যা করার সন্দেহে তাদের আটক করা হয়েছে।

এর আগে নিহত শিশুর বাবা বাদী হয়ে অজ্ঞাত  কয়েকজনকে আসামি করে শনিবার রাতে মামলা দায়ের করেন। তোফাজ্জল হোসেন উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউপির সীমান্তগ্রাম বাঁশতলার জুবায়েল হোসেনের ছেলে ও বাঁশতলা দারুল হেদায়েত মাদরাসার প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

তোফাজ্জল হোসেনের বাবা জুবায়ের হোসেনের অভিযোগ, গ্রামে কালা মিয়ার ছেলে সেজাউল কবিরের সঙ্গে তার বোনের বিয়ে হয়েছে। সেজাউল প্রায়ই তার বোনকে মারধর করতেন। এ ঘটনায় গত বুধবার আদালতে তারা একটি মামলা করেছেন। এরপর সেজাউলের পরিবারের তাদের দেখে নেয়ার হুমকি দিয়েছিল।

তিনি আরো বলেন, আমার ছেলেকে সেজাউল ও তার পরিবারের লোকজন অপহরণ করে নিয়ে হত্যা করেছে।

প্রসঙ্গত, নিখোঁজের চারদিন পর শনিবার ভোরে সাত বছর বয়সী  শিশু তোফাজ্জল হোসেনের বস্তাবন্দী মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ খবর

আমাদের ফেইসবুক পেইজ