দিরাইয়ে শালিসি বৈঠকে সংঘর্ষ, আহত ১৫

প্রকাশিত: ১:১২ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ৩, ২০২১

দিরাইয়ে শালিসি বৈঠকে সংঘর্ষ, আহত ১৫

দিরাই প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে গ্রামের শালিসি বৈঠকে হামলার ঘটনায় ১৫ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত তিন জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। তারা হলো আরজু মিয়া (৪০) রেজাউল (৩০) ও ছইফ উদ্দিন (৫৮)।

সোমবার দিবাগত রাত আটটায় উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের অনন্তপুর গ্রামের ছইফ উদ্দিনের বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে দিরাই থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

দিরাই থানা পুলিশ ও গ্রামবাসী সুত্রে জানা যায়, দুই দিন পূর্বে অনন্তপুর গ্রামের ফজলুল হকের ভাতিজা নাহিদ ও জহর মিয়ার ছেলে জাহাঙ্গীর মিয়া ফুটবল খেলার মাঠে মারামারি করে। এ ঘটনা মীমাংসা করতে সোমবার রাতে গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে উভয় পক্ষের লোকজন নিয়ে সালিসি বৈঠক বসে। বৈঠক চলাকালে একপর্যায়ে জাহাঙ্গীর মিয়ার পক্ষ নিয়ে লেবু মিয়া মেম্বার নাহিদের পক্ষের লোকজনের উদ্দেশ্যে উস্কানীমূলক মন্তব্য করতে থাকে। এসময় নাহিদের পক্ষের লোকজন বাঁধা দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে লেবু মেম্বার ও তার লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে প্রতিপক্ষের লোকদের উপর অতর্কিতভাবে হামলা চালায়। পরে দুই পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। দুপক্ষের সংঘর্ষে এলাকার সালিশ ব্যক্তিত্ব নওশেরান চৌধুরীসহ কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়। এদের মাঝে তিনজনকে আশংকাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকিদের দিরাই উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি ও প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। সংঘর্ষের ব্যাপারে এক পক্ষ অপর পক্ষের লোকজনকে দায়ী করছে।

দিরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আশরাফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অনন্তপুর গ্রামের শালিসি বৈঠকে হামলার খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ