দোয়ারাবাজারে খাল কাটা নিয়ে পাঁচ গ্রামের মানুষের মধ্যে উত্তেজনা

প্রকাশিত: ৭:৩৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২০

দোয়ারাবাজারে খাল কাটা নিয়ে পাঁচ গ্রামের মানুষের মধ্যে উত্তেজনা

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি :: দোয়ারাবাজারের ৮নং বোগুলা ইউনিয়নে খাল কাটার নামে ফসলি জমি নষ্টের অভিযোগ উঠেছে।স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের খামখেয়ালীপনায় ফসলি জমি নষ্টসহ বাড়ী-ঘর বিলীনের আশংকায় পাঁচ গ্রামের মানুষের মধ্যে উত্তেজনা ক্রমেই বাড়ছে। এ নিয়ে বড় ধরণের সংঘাতের আশংকা দেখা দিয়েছে।

উপজেলার বোগলাবাজার ইউনিয়নে অপ্রয়োজনীয় ও পরিকল্পিতভাবে কৈয়াজুরি হাওরে আলমখালী ও পেশকারগাঁও মৌজায় আবাদি জমি নষ্ট করে ব্যক্তি মালিকানা জমির উপর দিয়ে খাল খনন উদ্যোগের প্রতিবাদে স্থানীয়রা বৃহস্পতিবার(১৩ ফেব্রুয়ারী)উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী।

এদিকে ফসলি জমি রক্ষার দাবীতে বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,দোয়ারাবাজার উপজেলা প্রকৌশল অফিস জমির মালিক, এলাকাবাসীর সাথে আলোচনা না করেই পুরাতন খাল বাদ দিয়ে নিজেদের ইচ্ছে মত নতুন খাল খননের নকশা তৈরী করে কৃষকদের রেকডিয় জমির উপর দিয়ে খাল খননের কাজ শুরু করা হয়েছে যাহা কৃষকদের উপকারের চাইতে ক্ষতি বেশি হবে। এলাকাবাসী আলমখালী মৌজার আবাদী জমির উপর নতুন করে খাল খনন না করে পেস্কারগাও মৌজার ম্যাপ অনুযায়ী পুরাতন খাল সনাক্ত করে খাল খননের দাবী জানান।

এ ব্যাপারে ভূমি মালিকদের পক্ষে দরখাস্তকারী মোঃ আবুল হোসেন বলেন, এসব জমি আমাদের মৌরশী সম্পত্তি, সরকারি কর-খাজনাদি দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ভোগ দখলে আছি। কিন্তু কর্তৃপক্ষ মালিকানাধীন ভূমি অধিগ্রহণ কিংবা নোটিশ না দিয়ে এসব জমি দখল করে খাল খনন করছে,যা অপ্রয়োজনীয় এবং অপরিকল্পিত।

তিনি আরও বলন, এই হাওরে খাল করা হলে ওজান থেকে পানি এসে হাওরে জলাবদ্ধতা লেগে থাকবে। ফলে এখানকার কৃষকদের একমাত্র জীবিকা নির্বাহের মাধ্যম আমন আউশ কোনো ফসল হবে না।

এর আগে মালিকানাধীন জমিতে অপ্রয়োজনীয় খাল খনন বন্ধ করার জন্য ভূমি মালিকগন এবং এলাকাবাসী কাজ বন্ধ করার জন্য আলমখালী, ইদুকোনা, ক্যাম্পেরঘাট, কৈয়াজুরি,পেশকারগাঁও, ধর্মপুরসহ বিভিন্ন গ্রামের কৃষকরা প্রতিবাদ জানান।

এ সময় উপস্থিত থেকে কৃষকদের সাথে কৈয়াজুরি হাওরে মালিকানাধীন জমিতে খাল খনন না করার জন্য একাত্মতা ঘোষনা করেন, বোগলাবাজার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম জুয়েল, সাবেক চেয়ারম্যান আহম্মদ আলী আপন, বগুলা স্কুল এন্ড কলেজের সাবেক গভর্নিং বডির সভাপতি মোহাম্মদ মিলন খান, বীর মুক্তিযুদ্ধা ডাঃ শামসুল হক, মোঃ আবুল কাশেম, বোগলাবাজার ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মিজানুর রহমান মিজান, মনিরুল ইসলাম নান্টু, নুরু উদ্দিন প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের ফেইসবুক পেইজ