নায়ক রাজহীন তিন বছর

প্রকাশিত: ৫:২৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০২০

নায়ক রাজহীন তিন বছর

বিনোদন ডেস্ক :: নায়ক রাজরাজ্জাক চলে যাওয়ার তিন বছর পূর্ণ হলো আজ। অভিনয় জগতের উজ্জ্বল নক্ষত্র নায়করাজ রাজ্জাক। ২০১৭ সালের এই দিনে তিনি দেশের চলচ্চিত্র অঙ্গনে বড় এক শূন্যতা তৈরি করে নিয়েছেন চিরবিদায়। চলচ্চিত্রে যাদের অবস্থান তৈরি হয়েছিল মেধা, মনন ও শ্রমে, নায়করাজ ছিলেন তাদের মধ্যে শীর্ষস্থানীয়। তার অনবদ্য অভিনয় হৃদয় কেড়েছে দেশ-বিদেশের নানা বয়সী দর্শকের।।

তার তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকীতে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি, পরিচালক সমিতি, প্রযোজক পরিবেশক সমিতির সদস্যরা নায়করাজ রাজ্জাক শ্রদ্ধা ভরে সরণ করার কথা জানিয়েছেন। তবে করোনা ভাইরাসের কারণে কোন আয়োজন রাখা সম্ভব হয়নি।

নায়করাজের ছোট ছেলে নায়ক সম্রাট বলেন, বাবার মৃত্যুবার্ষিকী স্মরণে আজ জোহরের নামাজের পর পরিবারের সকলে মিলে আমাদের বাসাতেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোয়ার আয়োজন করা হয়েছে।পাশাপাশি আমাদের একটি এতিমখানা আছে সেখানে কোরআন খতমসহ এতিম শিশুদের খাওয়ানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

নায়করাজ রাজ্জাকের জন্ম ১৯৪২ সালে ২৩ জানুয়ারি কলকাতায়। ১৯৬৪ সালে ঢাকায় আসেন তিনি। এরপর জড়িয়ে পড়েন চলচ্চিত্রে। দু’একটা সিনেমায় ছোটখাটো চরিত্রে অভিনয় করার পর ১৯৬৭ সালে মুক্তি পায় নায়ক হিসেবে তার প্রথম ছায়াছবি ‘বেহুলা’। সেই থেকে শুরু।

অভিনয়ের পাশাপাশি ছবি পরিচালনার কাজও করেছেন রাজ্জাক। ১৬টির মতো ছায়াছবি পরিচালনা করেছেন তিনি। রাজ্জাক অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবির মধ্যে রয়েছে- স্লোগান, আমার জন্মভূমি, অতিথি, কে তুমি, স্বপ্ন দিয়ে ঘেরা, প্রিয়তমা, পলাতক, ঝড়ের পাখি, খেলাঘর, চোখের জলে, আলোর মিছিল, অবাক পৃথিবী, ভাইবোন, বাঁদী থেকে বেগম, সাধু শয়তান, অনেক প্রেম অনেক জ্বালা, মায়ার বাঁধন, গুণ্ডা, আগুন, মতিমহল, অমর প্রেম, যাদুর বাঁশী, অগ্নিশিখা, বন্ধু, কাপুরুষ, অশিক্ষিত, সখি তুমি কার, নাগিন, আনারকলি, লাইলী মজনু, লালু ভুলু, স্বাক্ষর, দেবর ভাবী, রাম রহিম জন, আদরের বোন, দরবার, সতীনের সংসার।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ