‘পাপা, তুমি এখানেই থাকতে!’

প্রকাশিত: ১১:৫৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১১, ২০২০

‘পাপা, তুমি এখানেই থাকতে!’

স্পোর্টস ডেস্ক

পর্তুগালের মাদেইরার ফুনচালে ছোট্ট একটি ঘরে ভাইবোনদের সঙ্গে কেটেছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর শৈশব-কৈশোর। গেল বছর ছেলে ক্রিশ্চিয়ানো জুনিয়রকে ওই বাড়ি দেখাতে নিয়ে গিয়েছিলেন জুভেন্টাসের পর্তুগিজ তারকা।

বিলাসী জীবনযাপনে অভ্যস্ত ক্রিশ্চিয়ানো জুনিয়র অবাক হয়েছিল তার বাবার ছোট্ট শোয়ার ঘর দেখে। ‘পাপা, তুমি এখানে থাকতে’, বিস্ময়াভিভূত জুনিয়র রোনাল্ডোর যেন বিশ্বাসই হচ্ছিল না।

বর্তমানে ৭৮৯ মিলিয়ন পাউন্ডের মালিক রোনাল্ডো বিত্ত-বৈভবের মাহাসমুদ্রে অবগাহন করছেন। সেই ছোট্ট বাড়ি ছেড়ে বিলাসবহুল বাংলোয় উঠেছেন। স্পোর্টিং লিসবনে শুরু করে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও রিয়াল মাদ্রিদ হয়ে এখন তিনি জুভেন্টাসে। ক্লাব বদলের সঙ্গে বাড়ি বদল করেছেন। ম্যানইউতে (২০০৩-২০০৯) খেলার সময় তিন মিলিয়ন পাউন্ডের ম্যানশনে থেকেছেন।

রিয়ালে যাওয়ার পর ৪.৮ মিলিয়ন পাউন্ডের বিলাসবহুল বাড়িতে ডুব দিয়েছেন অথৈ সুখে। ২০১৮ সালে জুভেন্টাসে যোগ দেয়ার পর এমন একটি বাড়ির প্রয়োজন ছিল তার, যেটি তুরিনের ‘নতুন রাজার’ থাকার উপযুক্ত হয়।

গত বছর ১.৪ মিলিয়ন পাউন্ড খরচ করে তুরিনের বাড়িটির এমনভাবে সংস্কার করেছেন যে, দূর থেকে দেখলে মনে হবে এখানে কোনো ‘রাজা’ থাকেন। ভেতরের সাজসজ্জার কথা না বলাই ভালো।

রোনাল্ডো ফুনচালকে ভুলে যাননি। পুরনো বাড়ি ভেঙে সাততলা অ্যাপার্টমেন্ট নির্মাণের কাজ শেষ করেছেন গত গ্রীষ্মে। শৈশবের স্মৃতিবিজড়িত বাড়ি নতুন করে দাঁড় করাতে পর্তুগিজ তারকা খরচ করেছেন সাত মিলিয়ন পাউন্ড। কয়টা শোবার ঘর তা জানা যায়নি। তবে এটা বলে দেয়া যায় যে, সেই অ্যাপার্টমেন্টেই রোনাল্ডোর সব স্বপ্ন-আকাঙ্ক্ষা প্রজাপতি হয়ে উড়ে বেড়ায়।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
      1
3031     
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ