পিঠা উৎসবে ২৫ ধরনের পিঠা তৈরি করলেন জোহরা মমতাজ বেগম

প্রকাশিত: ১২:৪৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২১

পিঠা উৎসবে ২৫ ধরনের পিঠা তৈরি করলেন জোহরা মমতাজ বেগম

অনলাইন ডেস্ক
বৃক্ষরোপনে প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় পুরস্কার পেয়ে সুÑখ্যাতি অর্জন ও সিলেটের সুনাম বৃদ্ধি করেছেন সিলেটের পীরের বাজার খাদিমনগরের সৌখিন গৃহবধু জোহরা মমতাজ বেগম। এবার তিনি নিজেই পিঠা উৎসবে সিলেটের ঐতিহ্যবাহী চুংগা পিঠা, ভাপা পিঠা, চিতই পিঠা, পাটিসাপটা, চই পিঠা, সন্দেশ, নুনগরা, পাপড়া, সিংগাড়া, রুটি পিঠাসহ ২৫ ধরনের পিঠা তৈরি করে তাক লাগালেন সকলকে। দিনব্যাপী ব্যতিক্রম এই পিঠা উৎসব ও সাহিত্য আড্ডার আয়োজন করেন নিজের বাসার ছাদ বাগানের দৃষ্টিনন্দন পরিবেশে পাঁচ শতাধিক ফল ফুল ও ঔষধী গাছ গাছালির সাথে মিতালী করে, নির্মল পরিবেশে দীগন্ত বিস্তৃত বিশাল নীল আসমানের অপরূপ সৌন্দর্যরাজি অবলোকন করে করে।
সিলেট লেখক ফোরামের উপদেষ্টা প্রবীণ সাংবাদিক কলামিস্ট বৃক্ষপ্রেমিক আফতাব চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও লেখক ফোরাম সভাপতি সাংবাদিক কবি নাজমুল ইসলাম মকবুলের সঞ্চালনায় ৭ ফেব্রুয়ারী রবিবার আয়োজিত অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন জোহরা মমতাজ বেগমের অনুপ্রেরণাদাতা এবং জীবনসঙ্গী প্রবাসী ব্যবসায়ী সিদ্দিকুর রহমান চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে পুরো অনুষ্ঠান প্রাণবন্ত করে তোলেন কবি ইসমত হানিফা চৌধুরী, সিলেট সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ফৌজিয়া আক্তার, ব্যাংকার মাসুদ চৌধুরী, এডভোকেট ফাহমিদা সুলতানা স্বর্ণা, সাংবাদিক আলিম উদ্দিন, সিলেট কৃষি বিশ^বিদ্যালয়ের অনার্স ফাইন্যাল ইয়ারের ছাত্র তৌহিদুর রহমান চৌধুরী, সিলেট ক্যান্টনমেন্ট কলেজের ছাত্র শামসুর রহমান চৌধুরী, শামসিয়া চৌধুরীসহ আরও অনেকে।
বক্তারা বলেন, আঁকাশছোয়া স্বপ্নজয়ী জোহরা মমতাজ বেগম বাংলাদেশের অহংকার। তিনি বৃক্ষরোপনে প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় পুরস্কার পেয়ে প্রমাণ করেছেন নিয়মিত কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে নারীরাও অর্জন করতে পারেন সাফল্যের মুকুট। আরোহন করতে পারেন সফলতার স্বর্ণচুড়ায়।
তারা আরও বলেন, নিজের বাসার ছাঁদে বিরল প্রজাতিরসহ পাঁচ শতাধিক ফলের ফুলের ও ঔষধী গাছ লাগিয়ে পরিবেশ সুরক্ষায় অবদান রাখার পাশাপাশি তিনি অনুপ্রেরণা দিচ্ছেন অন্যদেরকেও। ছাদ বাগানের মনোরম পরিবেশে পিঠা উৎসব ও সাহিত্য আড্ডার ব্যতিক্রম আয়োজন সিলেটের সাহিত্য ও সংস্কৃতির জগতে এক অনন্য দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।
অনুষ্ঠান শেষে সিলেটের ঐতিহ্যবাহী সাতকরা দিয়ে গরুর গোশত ভুনা সাথে চুংগা পিঠা ও রুটি পিঠাসহ অন্যান্য মুখরোচক খাবার ও মজাদার পিঠা দিয়ে আপ্যায়ন করা হয় সকল অতিথিদেরকে। সেসাথে আয়োজকের পক্ষ হতে সকল অতিথিদেরকে চুংগা পিঠাসহ সকল ধরনের পিঠার পৃথক পৃথক গিফট প্যাকেট ও নিজের হাতে লাগানো গাছ থেকে সংগ্রহকৃত জলপাই ও বরইর নিজ হাতে তৈরী করা আচারের কৌটা উপহার প্রদান করা হয়।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ