প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনা : সুস্থ অবস্থায় রায়হানকে ধরেছিল পুলিশ

প্রকাশিত: ৪:৩০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৩, ২০২০

প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনা : সুস্থ অবস্থায় রায়হানকে ধরেছিল পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক :: কোন গনপিটুনির ঘটনা ঘটেনি সিলেটের কাষ্টঘরে। সুস্থ অবস্থায় রায়হান ও আরও এক জনকে ধরে এনেছিল পুলিশ। তারা দু’জন পুলিশের তাড়া খেয়ে নিজেকে বাঁচাতে কাস্টঘর এলাকার সুইপার কলোনির সুরাইলালের ঘরে প্রবেশ করেছিলেন বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শী সুরাইলাল।সুরাইলাল আরো জানায়, ‘রাত আনুমানিক ৩ টা। এসময় বাইরে থেকে কেউ আমার ঘরের দেয়ালে ধাক্কাচ্ছে আর দরজা খোলার জন্য ডাকছে শুনে আমি দরজা খুলি। দরজা খুলতে না খুলতে দুইজন মানুষ আমার ঘরের ভিতরে ঢুকে গেছে এর পিছনেই পুলিশ এসেছে। এসে তাদের ধরে নিয়ে গেছে। এই দুইজনের একজন রায়হান। আর অন্য একজন কে তা জানি না। এসময় কোন গণপিটুনি হয়নি। কেন ধরে নিয়ে গেছে জানি না তাও।’প্রত্যক্ষদর্শী সুরাইলালের ভাষ্যমতে রায়হান সহ আরও একজনকে সম্পূর্ণ সুস্থ অবস্থায় ধরে আনা হলেও মেট্রোপলিটন পুলিশ এখনো এটিকে কর্তব্যে গাফিলতি হিসেবেই বিবেচনা করছে। তারা নির্যাতনে মৃত্যু বলতে নারাজ। এ ব্যাপারে মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (গণমাধ্যম) জ্যোতির্ময় সরকার জানান, ‘আপাতত তদন্ত কমিটির সিদ্ধান্তে তাদের বরখাস্ত ও প্রত্যাহার করা হয়েছে। তাদের গাফিলতি থাকায় এ সিদ্ধান্ত হয়েছে,’ প্রত্যক্ষদর্শীর বক্তব্য যেখানে রায়হানকে সুস্থ অবস্থায় ধরে আনা হয়েছে সেখানে তার মৃত্যুতে এখনও কেন কেবল গাফিলতিটাকেই বিবেচনা করা হচ্ছে এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘এটা নিয়ে মামলা হয়েছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আছে। আমি আপাতত কিছু বলতে চাইছি না। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’রোববার (১১ অক্টোবর) সকাল সারে ১০ টার দিকে প্রথমে রায়হানের মৃত্যুর বিষয়টি পরিবারকে জানানো হলে তাৎক্ষণিক সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে ‘ছিনতাই করতে গিয়ে ধরা খেয়ে গণপিটুনিতে রায়হানের মৃত্যু হয়েছে’ বলে জানানো হলেও পরে পরিবারের পক্ষ থেকে ‘পুলিশি নির্যাতনে রায়হানের মৃত্যু হয়েছে’ বলে অভিযোগ উঠে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
  12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ