বগুড়ায় ছাত্রলীগের কমিটি বাতিলের দাবিতে ছাত্র-গণসমাবেশ

প্রকাশিত: ৭:৩৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৩, ২০২২

বগুড়ায় ছাত্রলীগের কমিটি বাতিলের দাবিতে ছাত্র-গণসমাবেশ

অনলাইন ডেস্ক ::

বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটি বাতিলের দাবিতে ছাত্র-গণসমাবেশ করা হয়েছে। বুধবার বেলা ১১টার সময় শহরের সাতমাথা মুজিব মঞ্চে জেলা ছাত্রলীগের তৃনমূল নেতাকর্মীরা এ সমাবেশের আয়োজন করে।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম মোহন, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মাশরাফি হিরো, সদস্য অধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম দুলু, জেলা যুবলীগের সভাপতি শুভাশিষ পোদ্দার লিটন, সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ডাবলু। গণসমাবেশে নেতারা জেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটিকে অযোগ্য বলে একাত্মতা ঘোষণা করেন।
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন নিহত ছাত্রলীগ নেতা তাকবীরের মা আফরোজা ইসলাম, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অসীম কুমার রায়, ছাত্রলীগ নেতা কে এম মোজাম্মেল হোসাইন বুলবুল, জাকিউল ইসলাম জনি, রাকিবুল ইসলাম রঞ্জু, ওবায়দুল্লাহ সরকার স্বপন, শামীম হোসেন, আব্দুল রাব্বী স্বাধীন, সুজিত কুমার দাসসহ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, প্রেস নোটের মাধ্যমে বগুড়া জেলা শাখার এই কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এই কমিটি অযোগ্য, ব্যবসায়ী, মাদক মামলার আসামি ও বহিরাগতদের নিয়ে গঠন করা হয়েছে। যা আমাদের মেনে নেয়ার মতো নয়। অযোগ্য সভাপতি ও সম্পাদক দ্বারা বগুড়া জেলা ছাত্রলীগ কমিটি করা হয়েছে। এক্ষেত্রে ত্যাগী ছাত্রনেতাদের মূল্যায়ন করা হয়নি। অযোগ্য এই কমিটি বাতিল না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবেন বলে জানান তারা।

এদিকে বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের অন্তর্গত দুই ইউনিটের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। দুই ইউনিট হলো-বগুড়া সদর উপজেলা এবং সরকারি আজিজুল হক কলেজ শাখা। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সজীব সাহা ও সাধারণ সম্পাদক আল মাহিদুল জয় স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। তবে দুই ইউনিটের দায়িত্বপ্রাপ্ত দুই নেতা এই কমিটি বিলুপ্তের বিরোধিতা করেছেন।

জানা যায়, ২০১৫ সালে ওবাইদুল্লাহ সরকার স্বপনকে সভাপতি এবং শামীম হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে বগুড়া সদর উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি গঠন করা হয়। এরপর তারা দুজন ২০১৭ সালে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করেন।

অপরদিকে, ২০১৭ সালের ৩ নভেম্বর সরকারি আজিজুল হক কলেজে ছাত্রলীগের মোজাম্মেল হক বুলবুলকে সভাপতি ও আব্দুর রউফকে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেয়া হয়। এই দুই নেতা ২০১৮ সালে এবং ২০২১ সালের মার্চ পর্যন্ত দুই দফা পূর্ণাঙ্গ কমিটি জমা দিলেও সেই কমিটি অনুমোদন পায়নি। পরে ২০২১ সালের ১১ মার্চ রাতে বগুড়া শহরের সাতমাথায় প্রতিপক্ষ গ্রুপের অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হন জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তাকবীর ইসলাম। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৫ মার্চ দুপুরে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় তাকবীরের মা আফরোজা ইসলাম কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রউফসহ ছয়জনের নামে মামলা করেন। এরপর ১৭ মার্চ রউফকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়। সেই থেকে বুলবুল একাই কলেজে ছাত্রলীগের নেতৃত্ব দিয়ে আসছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ৭ নভেম্বর সজীব সাহাকে সভাপতি এবং আল মাহিদুল ইসলাম জয়কে সাধারণ সম্পাদক করে বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। কমিটি ঘোষণার পর থেকেই কাঙ্ক্ষিত পদ না পাওয়ায় পদবঞ্চিত নেতা ও তাদের সমর্থকরা নতুন কমিটি বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করে আসছেন।

বিডি প্রতিদিন

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
   1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031 
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ