বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর স্বাধীনতার মিথ্যা ঘোষক দাঁড় করানো হয়েছিল

প্রকাশিত: ৩:৫৬ অপরাহ্ণ, মার্চ ২১, ২০২১

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর স্বাধীনতার মিথ্যা ঘোষক দাঁড় করানো হয়েছিল

অনলাইন ডেস্ক

‘বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর তার নামটি পর্যন্ত মুছে ফেলার চেষ্টা হয়েছিল’ মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আজকে আর সেই নাম মুছতে পারবে না। যেখানে মিথ্যা ঘোষক হওয়ার চেষ্টা হয়েছিল, আন্তর্জাতিকভাবে সেই ঘোষকের আর কোনো ঠিকানা থাকবে না। কারণ বিশ্ব নেতৃবৃন্দ এটি দেখছেন, প্রচার করছেন এবং বিভিন্ন জায়গায় রেজুলেশন হচ্ছে যে, ২৬ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানই স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন।’

রোববার (২১ মার্চ) দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর ১০১তম জন্মবার্ষিকীতে আওয়ামী লীগের আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী।

১৫ আগষ্ট ট্র্যাজেডির কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর ইতিহাস থেকে তার নামটা মুছে ফেলার আপ্রাণ চেষ্টা হয়েছে। স্বাধীনতার ঘোষক দাঁড় করানো হয়েছিল। স্বাধীনতার নায়ক দাঁড় করানো হলো। ইতিহাস পাল্টে ফেলার চেষ্টা হয়েছে। এমন একটা পরিবেশ তৈরি করা হলো, তার (বঙ্গবন্ধু) নামটাও নেয়া যাবে না। মুক্তিযোদ্ধারা ‘মুক্তিযুদ্ধ করেছি’, বলার সাহসও পায়নি। তারা সেই সাহস হারিয়ে ফেলেছে। কারণ তখন এটা বললেই নির্যাতন করা হতো। যারা অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলদারদের চাটুকারিতা করেছে, তারাই সবকিছু বলতে পারত।’

তিনি বলেন, ‘সত্যকে সত্য বলা নিষিদ্ধ ছিল। ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ, যে ভাষণের মধ্য দিয়ে অসহযোগ আ

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
     12
24252627282930
31      
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ