বঙ্গবীর ওসমানী ছিলেন আজীবন খাঁটি দেশপ্রেমিক: মিসবাহ সিরাজ

প্রকাশিত: ৮:৫১ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২১

বঙ্গবীর ওসমানী ছিলেন আজীবন খাঁটি দেশপ্রেমিক: মিসবাহ সিরাজ

অনলাইন ডেস্ক :: বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেছেন, ওসমানী ছিলেন একজন আদর্শ, সৎ চরিত্র ও নিষ্ঠাবান সৈনিক। তিনি ছিলেন আজীবন গণতন্ত্রী, ধার্মিক ও খাঁটি দেশপ্রেমিক। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশে ও বঙ্গবীর এমএজি ওসমানীর নেতৃত্বে পশ্চিমাদের কবল থেকে বাংলাদেশ মুক্ত হয়। অনেক সময় তিনি জাতিকে নির্ঘাত সংঘাত থেকে উত্তরণের পথ দেখিয়েছেন। তিনি আদর্শ, দেশপ্রেম ও মূল্যবোধের ছিলেন এক অনন্য প্রতীক। তিনি ছিলেন কিংবদন্তীর এক মহানায়ক। তিনি বীরত্ব, কর্তব্য, নিষ্ঠা ও চারিত্রিক গুণাবলীর জন্যে ইতিহাসে অমর হয়ে থাকবেন।

সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে বঙ্গবীর ওসমানী জন্ম ও মৃত্যু বার্ষিকী উদযাপন পরিষদ জাতীয় কমিটি সিলেটের আয়োজনে মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর সেনানী, বাংলার গর্ব ও অহংকার বঙ্গবীর জেনারেল এমএজি ওসমানীর ৩৭তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথাগুলো বলেন।

বঙ্গবীর ওসমানী জন্ম ও মৃত্যু বার্ষিকী উদযাপন পরিষদ জাতীয় কমিটির সভাপতি ও জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমানের সভাপতিত্বে এবং বঙ্গবীর ওসমানী জন্ম ও মৃত্যু বার্ষিকী উদযাপন পরিষদ জাতীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মনোরঞ্জন তালুকদার ও মানববাধিকার ফাউন্ডেশনের সহ সভাপতি শফিকুর রহমান শফিকের যৌথ পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার সুব্রত চক্রবর্তী জুয়েল, সিলেট জেলা এডিশনাল পিপি এডভোকেট শামসুল ইসলাম, ইমিগ্রেশন এডভাইজার ড. আর. কে. ধর, শ্রীহট্ট সংস্কৃত কলেজের অধ্যক্ষ ড. দিলীপ কুমার দাশ চৌধুরী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আবু জাফর মো. আলী হাসান, বিএমবিএফ সিলেট বিভাগের নির্বাহী সভাপতি রোটারিয়ান আসাদুজ্জামান, সিলেট জেলা সভাপতি আশরাফুর রহমান চৌধুরী, বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি সিলেট জেলার সাবেক সভাপতি মাহবুবুল আলম মিলন, ফুলকলি ফুড প্রোডাক্টস লি. এর ডিজিএম মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন খন্দকার, বীর মুক্তিযোদ্ধা মুজিবুর রহমান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মো. বশির আহমদ, ডা. কানু দত্ত সেনাপতি, এডভোকেট সুদীপ বৈদ্য।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মহি উদ্দিন আহমদ, মানবাধিকার কর্মী ফাউন্ডেশন মহিলা ও শিশু সম্পাদক সহকারী শিক্ষক রুনা সুলতানা, সিলেট বিভাগের সহ সভাপতি মো. বেলাল উদ্দিন, ফাইয়াজ হোসেন ফরহাদ, এডভোকেট মো. আব্দুল রহিম তালুকদার, এডভোকেট মো. জাহাঙ্গীর চৌধুরী, সারিঘাট আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রাহেল আহমদ চৌধুরী, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য মো. ইউসুফ সেলু, জাহাঙ্গীর আলম, মো. মামুন চৌধুরী, তুহিন চৌধুরী, রিয়াজ উদ্দিন ফরহাদ প্রমুখ।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ