বাদশাভাই একজন নীতিনিষ্ট জনদরদী রাজনৈতিক নেতা ছিলেন….

প্রকাশিত: ৫:০৬ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২৬, ২০২১

বাদশাভাই একজন নীতিনিষ্ট জনদরদী রাজনৈতিক নেতা ছিলেন….

রুহুল কুদ্দুস বাবুল

সিরাজ উদ্দীন বাদশাভাইও চলে গেলেন না ফেরার দেশে। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্নাইলাইহি রাজিউন।
বাদশাভাই প্রগতিশীল রাজনীতিবিদ, গণতন্ত্রী পার্টির সভাপতিমণ্ডলির সদস্য ও কৃষক সমিতির কেন্দ্রীয় সহসভাপতি ছিলেন।
১৯৮৬ সালে ন্যাপের ঐক্য প্রক্রিয়া শুরু হলে তাঁর সাথে ঘনিষ্টতা। আমাদের ছাত্র জীবনে তিনি ছিলেন অবিভাবকের মত। মৌলভীবাজারের নেতা সিলেট আসলে থাকতেন সড়ক ও জনপথের রেষ্ট হাউসে। সন্ধ্যায় ধুপাদীঘির পাড়ের পার্টি অফিসে। সিনিয়র নেতাদের আড্ডা চলতো অনেক রাত পর্যন্ত। আলোচনা রাজনীতিই। শুনতাম আড্ডার ছলে তাদের স্মৃতিচারণ। জননেতা আব্দুল হামিদ ছিলেন মধ্যমনি। গোলজারভাই (গোলজার আহমদ), ইকবালভাই (ইকবাল আহমদ চৌধুরী) আলমভাই (শামসুল আলম চৌধুরী) ব্যারিষ্টার আরশ আলীভাই, হক ভাই (আব্দুল হক), ওদুদভাই (আব্দুল ওদুদ চৌধুরী), আম্বিয়াভাই ( আজিজুল আম্বিয়া), সুবলদা ( সুবল চন্দ্র পাল), মজনুভাই (মজনুর রহমান), মাসুমভাই (মাসুম আহমদ), যুবনেতা সয়েফভাই, ছাত্রনেতা সৈয়দ আনাস পাশা সহ অনেকেই নিয়মিত ছিলেন। বাদশাভাই খুবই হাসিখুশি একজন আপাদমস্তক ভদ্রলোক ছিলেন। দেশপ্রেমিক নিবেদিতপ্রাণ রাজনীতিবিদ। তিনি মৌলভীবাজারের নেতা হয়েও সিলেট জেলা ছাত্র সমিতিকে নিয়মিত চাঁদা দিতেন। আমাদের প্রতি ছিলেন স্নেহপরায়ন। আমাকে ও আনাসকে খুব স্নেহ করতেন।
সোভিয়েট প্রেসিডেন্ট মিখাইল গর্বাচেভের গ্লাসনস্ত প্রেরস্ত্রইকায় যখন সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙ্গে যাচ্ছে ঠিক তখন ঢাকাস্থ সোভিয়েত ইউনিয়নের ডেপুটি এম্বাসেডর সাপ্রিকিন ও কালচারাল সেক্রেটারী সাখারভ সিলেট সফরে আসলে আমরা অবিচল সাংস্কৃতিক সংস্থার পক্ষ থেকে সংবর্ধনার আয়োজন করি ঐতিহাসিক সারদা হলে।….. তারা কুলাউড়ায় ইস্পাহানি মির্জাপুর চা বাগানে সফরের আগ্রহ প্রকাশ করলে বাদশাভাই সব আয়োজন করেন। বাদশাভাইয়ে সাথে অনেক স্মৃতি জড়িয়ে আছে।
সিরাজ উদ্দীন বাদশাভাই একজন নীতিনিষ্ট জনদরদী রাজনৈতিক নেতা ছিলেন। তাঁর মৃত্যু আমাকে করেছে বেদনাহত। জননেতা পীর হবিবুর রহমান সমস্ত দেশপ্রেমিক প্রগতিশীল রাজনৈতিক দলের যে ঐক্যবদ্ধ করে একটি মঞ্চে আনতে চেয়েছিলেন বাদশাভাই ছিলেন সে প্রক্রিয়ার একজন সংগঠক। তিনিও চলে গেলেন। আজ ছিল ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি ন্যাপের ৬৪ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকি এ দিনটিতেই বাদশাভাইর চিরবিদায়। আসুন ন্যাপ পরিবারকে এক করি।
বাদশাভাইর রুহের মাগফেরাত কামনা করি। মহান আল্লাহ তাঁকে জান্নাত দান করুন।
রুহুল কুদ্দুস বাবুল
২৫.০৭.২০২১
◾ছবিতে দাড়ানো সিরাজ উদ্দীন বাদশাভাই। বসা সোভিয়েত ডেপুটি এম্বাসেডর মি. সাপ্রকিন, আমি ও গণতন্ত্রী পার্টির সভাপতি ব্যারিষ্টার আরশ আলী। ইস্পাহানি মির্জাপুর চা বাগান, কুলাউড়া।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ