বিএনপি নির্বাচন নয় ক্ষমতায় যাওয়ার চোরাগলি খোঁজে: তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী

প্রকাশিত: ১২:২৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৪, ২০২১

বিএনপি নির্বাচন নয় ক্ষমতায় যাওয়ার চোরাগলি খোঁজে: তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী

সংবাদপত্র ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় যে শৃঙ্খলা আনার উদ্যোগ নিয়েছেন, সেটি প্রশংসনীয় -সাইফুল আলম
সাংস্কৃতিক ডেস্ক

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি নির্বাচন নয়, ক্ষমতায় যাওয়ার চোরাগলি খোঁজে। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মন্তব্য ‘ভোটের পরিবেশ সৃষ্টি হলে সরকার পালানোর পথ খুঁজে পাবে না’-এ নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ভোটের পরিবেশ বলতে তারা কী বোঝায়, সেটিই বিএনপির কাছে আমার প্রশ্ন। বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল, তখন যেভাবে ভোট করতেন-‘দশটা হোন্ডা, বিশটা গুন্ডা, ভোট ঠান্ডা’-এটাই কি মির্জা ফখরুল সাহেবের কাছে ভোটের পরিবেশ! অথবা বিএনপি জয়লাভ করবে, সেই নিশ্চয়তা আগে থেকেই বিধান করতে হবে-সেটিই তার কাছে ভোটের পরিবেশ।’

বুধবার সকালে ঢাকা অফিসার্স ক্লাবে বিজনেস বাংলাদেশের পঞ্চম বর্ষে পদার্পণ ও ইংরেজি দৈনিক ‘ডেইলি বাংলাদেশ আপডেট’ পত্রিকার আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। পত্রিকা দুটির সম্পাদক মেহেদী হাসান বাবুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন অ্যাডভোকেট আবুল হাশেম খান এমপি, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও যুগান্তর সম্পাদক সাইফুল আলম, অতিরিক্ত সচিব ও অফিসার্স ক্লাব, ঢাকার সাধারণ সম্পাদক মেজবাহ উদ্দিন, ঢাকা রেঞ্জ পুলিশের ডিআইজি হাবিবুর রহমান, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু, দৈনিক সময়ের আলোর নির্বাহী সম্পাদক হারুন উর রশীদ প্রমুখ।

আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, মির্জা ফখরুল সাহেবের বক্তব্য নতুন কিছু নয়। আসলে তারা চায় এমন একটি ব্যবস্থা বাংলাদেশে হোক, যেটির মাধ্যমে নিশ্চিত করা যাবে যে বিএনপি ক্ষমতায় যাবে। সেটি তো জনগণ করতে পারবে না। এখানে জনগণের ভোটে আওয়ামী লীগ নির্বাচিত, আগামী দিনেও জনগণ ভোট দিলে আওয়ামী লীগ সরকার পরিচালনা করবে। এর বাইরে আওয়ামী লীগের কাছে কোনো পথ নেই। কিন্তু মির্জা ফখরুল সাহেবরা অনেক চোরাগলির পথ খোঁজেন, এটিই হচ্ছে দুর্ভাগ্য।

বিএনপিনেত্রী খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেওয়ার বিএনপির দাবির পরিপ্রেক্ষিতে তথ্যমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন, এটিই আমি প্রত্যাশা করি, প্রার্থনা করি। বাংলাদেশের চিকিৎসাব্যবস্থা ও চিকিৎসকদের প্রতি তাদের এত অবজ্ঞা কেন, সেটিই আমার প্রশ্ন।

এর আগে অনুষ্ঠানে দেওয়া বক্তব্যে মন্ত্রী সংবাদপত্রগুলোর প্রচারসংখ্যা বিষয়ে বলেন, চলচ্চিত্র প্রকাশনা অধিদপ্তর-ডিএফপিতে পত্রিকার সার্কুলেশন দেওয়া আছে, সেটি বাস্তবসম্মত নয়। আমরা আপাতত শিগগিরই সঠিক সার্কুলেশনের ভিত্তিতে ক্রম ঠিক করে দেব। সংবাদপত্রগুলোর মালিক, সম্পাদক, সাংবাদিক অনেকেই বিশেষ করে জাতীয় প্রেস ক্লাব, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নসহ অনেকেই এই শৃঙ্খলা আনার জন্য আমার পাশে দাঁড়িয়েছেন। এজন্য সবাইকে ধন্যবাদ।

যুগান্তর সম্পাদক সাইফুল আলম বলেন, সংবাদপত্র ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার ক্ষেত্রে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী যে শৃঙ্খলা আনার উদ্যোগ নিয়েছেন সেটি প্রশংসনীয়। স্বাধীন সাংবাদিকতার যে চ্যালেঞ্জ রয়েছে, তা মোকাবিলায় আমরা সরকারের সহযোগিতা চাই। এ সময় তিনি ‘বিজনেস বাংলাদেশ’-এর পঞ্চম বর্ষে পদার্পণ ও ইংরেজি দৈনিক ‘ডেইলি বাংলাদেশ আপডেট’-এর আত্মপ্রকাশে পত্রিকা দুটির সাংবাদিকদের শুভেচ্ছা জানান।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
  12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ