বিদেশ ভ্রমণে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নতুন নির্দেশনা

প্রকাশিত: ৩:০৯ অপরাহ্ণ, জুন ১০, ২০২১

বিদেশ ভ্রমণে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নতুন নির্দেশনা

ডেস্ক রিপোর্ট :: বৈশ্বিক দুর্যোগ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ তাণ্ডবের মাঝে বিদেশ ভ্রমণে নতুন নির্দেশনা দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এরই ধারাবাহিকতায় বিদেশগামী কোনো যাত্রীর নমুনা পরীক্ষায় একবার করোনা ভাইরাস পজিটিভ শনাক্ত হলে পরবর্তী সাত দিনের মধ্যে ওই যাত্রী কোনো ফ্লাইটে ভ্রমণ করতে পারবেন না। এই সাত দিনের মধ্যে নমুনা পরীক্ষায় নেগেটিভ সনদ পেলেও সেই সনদ গ্রহণযোগ্য হবে না।

তবে পজিটিভ হওয়ার সাত দিন পর ফের নমুনা পরীক্ষা করে নেগেটিভ রিপোর্ট এলে সেই সনদ দেখিয়ে যে কোনো ফ্লাইটে ভ্রমণ করা যাবে।

সম্প্রতি বেশ কয়েকটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অবৈধ অর্থ লেনদেনের মাধ্যমে করোনা পজিটিভ রোগীকে স্বল্পসময়ের ব্যবধানে নেগেটিভ সনদ দেওয়া; এমনকি পরীক্ষা না করেই নেগেটেভ সনদ দেওয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হয়।

এসব অনিয়মের অভিযোগে বেসরকারি ৪টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এরপরই স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে নতুন এ নির্দেশনা জারি করা হয়। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

ওই কর্মকর্তা জানান, মহামারি করোনাকালেও প্রতিদিনই মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ফ্লাইট যাত্রী পরিবহন করছে। সংক্রমণ রোধে বিভিন্ন দেশ প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা হিসেবে কঠোর নিয়মকানুন ও স্বাস্থ্যবিধি প্রণয়ন করেছে।

উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেন, সৌদি আরবে যাওয়ার পর সাত দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হচ্ছে। শুধু তাই নয়, সৌদি যাওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে একবার ও সাতদিন পর আরেকবার নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। অন্যান্য দেশও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে নানাবিধি নিষেধ আরোপ করেছে।

জানা গেছে, করোনা সংক্রমণকালে বিভিন্ন সময় ও সম্প্রতি বেশ কয়েকজন করোনা নেগেটিভ সনদ নিয়ে বিদেশগামী যাত্রী সেদেশে গিয়ে নমুনা পরীক্ষায় পজিটিভ ধরা পড়লে পরীক্ষার মান ও দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়। এ কারণে কোনোভাবেই যাতে পজিটিভ যাত্রী ভ্রমণ করতে না পারে সে জন্যই নতুন নিয়ম করা হয়েছে।

তবে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কর্মরত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. শাহরিয়ার সাজ্জাদ বিষয়টি নিশ্চিত করলেও বিস্তারিত কিছু জানাতে রাজি হননি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আমাদের ফেইসবুক পেইজ