বড়লেখায় সবাইকে তাক লাগিয়ে আবারও চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন এনাম

প্রকাশিত: ১:০০ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ৩০, ২০২১

বড়লেখায় সবাইকে তাক লাগিয়ে আবারও চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন এনাম

স্বপন দেব, নিজস্ব প্রতিবেদক ::

এ.জে লাভলু, বড়লেখা:: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার দক্ষিভাগ উত্তর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী এনাম উদ্দিন বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে রীতিমতো সবাই তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। কারণ উপজেলার ১০ ইউপির মধ্যে চেয়ারম্যান পদে সবচেয়ে বেশি প্রার্থী লড়েছেন দক্ষিভাগ উত্তর ইউনিয়নে।

এরমধ্যে দলের চারজন বিদ্রোহী প্রার্থীর পাশাপাশি বিএনপি ও জামায়াতের দুজনসহ নয়জন স্বতন্ত্র প্রার্থীর সঙ্গে লড়াই করে জয়ী হওয়া রীতিমতো এনামের জন্য চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। কারণ দলের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থীরাই তাঁর পথে অনেকটা দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন। ফলে নৌকার ভরাডুবি হতে পারে এমন শঙ্কায় ছিলেন দলের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা।

তবে নেতাকর্মী ও সমর্থকদের সব শঙ্কাই উড়িয়ে সবাইকে রীতমতো চমকে দিয়েছেন এনাম। দলের চারজন বিদ্রোহী প্রার্থীর পাশাপাশি বিএনপি ও জামায়াতের দুজনসহ নয় প্রার্থীকে টপকে তিনি বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছেন। নৌকা প্রতীক নিয়ে তিনি পেয়েছেন ৩২২১ ভোট। এনিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

এনামের জয়ের কারণ হিসেবে দলের কর্মী, সমর্থক ও স্থানীয় ভোটাররা বলছেন, এনাম উদ্দির গত পাঁচ বছরে এলাকায় ব্যাপক উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন। এলাকার রাস্তা-ঘাট নির্মাণের পাশাপাশি বিশেষ করে তিনটি বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করে শিক্ষার আলো ছড়ানোর ক্ষেত্রে যে অবদান রেখেছেন তা দৃষ্টান্তমূলক। এসব দিক বিবেচনা করে মানুষজন এবার তাকেই ভোট দিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছেন।

জানতে চাইলে এনাম উদ্দিন বলেন, আমি সবার কাছে চিরঋণী। এ ঋণ শোধ করবার মতো নয়। কারণ মানুষের দোয়া ও ভালোবাসায় আমি দ্বিতীয়বারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। এজন্য দলের নেতাকর্মীর পাশপাশি আমাকে জয়ী করতে যারা রাতদিন কাজ করেছেন তাদের সবার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা। এছাড়া আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি মাননীয় পরিবেশ মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন এমপি মহোদয়ের কাছেও কৃতজ্ঞা জানাচ্ছি।

প্রসঙ্গত, তৃতীয় ধাপে মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার ১০ ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণভাবে গতকাল রোববার (২৮ নভেম্বর) সকাল ৮টা থেকে শুরু হয় ভোটগ্রহণ। বিরতিহীনভাবে চলে বিকেলে চারটা পর্যন্ত। ভোটগ্রহণ শেষে বিকেলে শুরু হয় গণনা। রাতে আনুষ্ঠানিকভাবে উপজেলার দশটি ইউনিয়নের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। উপজেলার দশটি ইউপির মধ্যে পাঁচটিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। বাকি পাঁচটির মধ্যে তিনটিতে বিদ্রোহী প্রার্থী; দুটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী হয়েছেন।

এরমধ্যে দক্ষিণভাগ উত্তর ইউপিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এনাম উদ্দিন নৌকা প্রতীকে ৩২২১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী জবরুল ইসলাম আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ১৯০২ ভোট। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী নজরুল ইসলাম (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী) ঢোল প্রতীকে পেয়েছেন ১৪০৪ ভোট; ময়নুল হক (বিএনপি) চশমা প্রতীকে পেয়েছেন ৮৮২ ভোট; মোহাম্মদ লুৎফুর রহমান (জামায়াত) টেবিল ফ্যান প্রতীকে পেয়েছেন ৬৪১ ভোট; আশরাফ হোসেন (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী) মোটরসাইকেল প্রতীকে পেয়েছেন ৪৯৪ ভোট; আব্দুল মানিক (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী) রজনীগন্ধা প্রতীকে পেয়েছেন ৮৪ ভোট; আব্দুল জলিল ফুলু (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী) ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ৩৬ ভোট; আব্দুল মালিক অটোরিকশা প্রতীকে পেয়েছেন ৩১ ভোট; মোসাহিদ আহমদ টেলিফোন প্রতীকে পেয়েছেন ২৪ ভোট।

দক্ষিণভাগ উত্তর ইউনিয়নের নয়টি ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা ১২ হাজার ৭৭৩। এরমধ্যে ৮ হাজার ৭১৯ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
     12
17181920212223
24252627282930
31      
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ