ভোরের কাগজের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার চেয়ে সিলেটে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ৯:২৫ অপরাহ্ণ, মে ২৫, ২০২২

ভোরের কাগজের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার চেয়ে সিলেটে মানববন্ধন

সিলনিউজ বিডি ডেস্ক :: ভোরের কাগজের প্রকাশক সাবের হোসেন চৌধুরী, সম্পাদক শ্যামল দত্ত ও বার্ত সম্পাদক ইখতিয়ার উদ্দিনসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে কুমিল্লায় ১০ কোটি টাকার মিথ্যা মানহানি মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সিলেটে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল বুধবার বিকাল ৪টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারের সামনে এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত কর্মসূচিতে সিলেটের গনমাধ্যমকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন। প্রতিবাদ সভায় সভাপত্বি করেন সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল সিদ্দিকী।

ভোরের কাগজের সিলেট ব্যুরো চীফ ফারুক আহমদের সঞ্চালনায় এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আল আজাদ, সিলেট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ রেনু, বাকবিশিস সিলেট মহানগরের সভাপতি অধ্যাপক অজয় কূমার রায়, সিলেট প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল হান্নান, সিনিয়র সাংবাদিক খালেদ আহমদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সিলেটের ডাক পত্রিকার চীফ রিপোর্টার সিরাজুল ইসলাম, প্রথম আলোর সিলেট ব্যুরো সুমন কুমার দাস, দৈনিক উত্তরপূর্বের প্রধান প্রতিবেদক তালুকদার আনোয়ারুল, সিনিয়র সাংবাদিক দেলোয়ার হোসেন জিলন, দৈনিক জৈন্তা বার্তার বার্তা সম্পাদক খালেদ আহমদ, ভোরের কাগজ পাঠক ফোরাম সিলেট এর সভাপতি অমিতা বর্ধন, সহ সভাপতি হিমাংশু রায় হিমেল, সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক মিহির মোহন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক উদয়ন বড়ুয়া, পাঠক ফোরাম সিলেট পরিবারের সদস্য হীরা মোহন রায়, শুভ্রা গুপ্ত, আব্দুর রহমান, আজাদ মিয়া, হেলাল আহমদ, ভোরের কাগজের সিলেট অফিসের স্টাফ রিপোর্টার জাহিদুল ইসলাম, দৈনিক স্বাধীন বাংলার সিলেট প্রতিনিধি আবুল কালাম কাওছার, দৈনিক জৈন্তা বার্তার স্টাফ রিপোর্টার শাহীদ হাতিমী, ভোরের কাগজ বিশ্বনাথ উপজেলা প্রতিনিধি বদরুল ইসলাম মহসিন, ফটো সাংবাদিক শহীদুল ইসলাম, পল্লব ভট্টাচার্য, ফারহান আহমদ প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, ভোরের কাগজের বাংলাদেশে মুক্ত সাংবাদিকতার পথ প্রদর্শক। সম্পাদক শ্যামল দত্তের মতো প্রতিথযশা সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা মূলত মুক্ত সাংবাদিকতার কন্ঠরোধ করার একটি অপচেষ্টা মাত্র। তারা বলেন, তিন দশকের বেশি সময় ধরে ভোরের কাগজ দেশের অন্যতম জনপ্রিয় দৈনিক। বস্তুনিষ্ঠ, তথ্য প্রমাণসমৃদ্ধ সংবাদ প্রকাশের জন্য ভোরের কাগজ বরাবরই সমাদৃত। সেখানে ভোরের কাগজের সম্পাদক-প্রকাশকের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে সাংবাদিকদের হেয় করা কোনোভাবেই কাম্য নয়। বক্তারা অবিলম্বে ভোরের কাগজের প্রকাশক ও সম্পাদকসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান।
বক্তারা আরও বলেন, ২০১৮ সালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে প্রকাশিত মাদক ব্যবসায়ীর তালিকায় নাম থাকা আরফানুল হক রিফাতের বিরুদ্ধে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের টেন্ডারবাজির হোতা, বালি খেকো ও কুমিল্লার মাদকের গড ফাদার হিসেবে পরিচিত বলে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় আগেও সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। সিটি নির্বাচনের আগে সংগঠিত অপকর্মগুলোকে ছাপিয়ে সকল অপরাধ ধামাচাপা দেওয়ার কৌশল হিসেবে ভোরের কাগজের প্রকাশক ও সম্পাদকসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মানহানি মামলা দায়ের করেন। যেখানে সরকার মাদক নির্মূলে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে, সেখানে শীর্ষ মাদক কারবারি আরফানুল হক রিফাত কীভাবে ভোরের কাগজের বিরুদ্ধে মামলা করেন? কিন্তু মামলা দিয়ে গণমাধ্যমের কন্ঠরোধ করে সাংবাদিকদের দমিয়ে রাখা যাবে না। অবিলম্বে নিঃশর্ত মামলা প্রত্যাহার না করলে দেশ জুড়ে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলবে সাংবাদিকরা।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ