মধ্যস্বত্বভোগীদের ব্যবস্থা নিয়ে এলপি গ্যাসের দাম দ্রুত কমিয়ে আনুন : গ্যাস-বিদ্যুৎ গ্রাহক কল্যাণ পরিষদ

প্রকাশিত: ১১:২৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১

মধ্যস্বত্বভোগীদের ব্যবস্থা নিয়ে এলপি গ্যাসের দাম দ্রুত কমিয়ে আনুন : গ্যাস-বিদ্যুৎ গ্রাহক কল্যাণ পরিষদ

ডেস্ক রিপোর্ট :: গ্যাস বিদ্যুৎ গ্রাহক কল্যাণ পরিষদের কেন্দ্রীয় আহবায়ক প্রবীন আইনজীবী নাছির উদ্দীন, যুগ্ম আহবায়ক ইকবাল হোসেন চৌধুরী ও সদস্য সচিব জননেতা মকসুদ হোসেন এক বিবৃতিতে এলপি গ্যাসের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধিতে গভীর উদ্বোগ, উৎকণ্ঠা ও তীব্র নিন্দা প্রকাশ করে বলেন, খবরে প্রকাশ প্রতি কেজিতে বেড়েছে প্রায় ১৭ টাকা। গত দু’মাসে খুচরা বাজারে ৩ দফায় দাম বেড়েছে। শুধু এলপি গ্যাসই নয়, বেড়েছে সিলিন্ডারের দাম। এতে করে নিম্ন-মধ্য আয়ের সাধারণ জনগণ, ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়িরা দিশেহারা। আতঙ্কিত ও বিক্ষুব্ধ।

করোনার কারণে দারিদ্রতা বেড়েছে। নিম্ন মধ্য বিত্ত জনগণ যখন বেঁচে থাকার তাগিদে জনজীবনকে সচল করার চেষ্টা করছেন তখনই চাল-তেল ও এলপিজি গ্যাসে মূল্য বৃদ্ধি বড়ই বে-ইনসাফী। ইনসাফ যার ভেতরে নেই, তার ভেতরে দেশপ্রেম নেই। বিভিন্ন কারণে সরকার গ্যাস সংযোগ বন্ধ করেছে। এ বিবেচনায় এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম অনেকটা কমানো হয়। তারপরও কোন অদৃশ্য শক্তির বলে এই দাম বৃদ্ধি করা হলো, সচেতন জনগণ তা জানতে চায়।

এলপিজি গ্যাস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী ফজলুর রহমান গণমাধ্যকে বলেছেন, সিলেটের কৈলাশটিলার প্লান্ট বন্ধ থাকায় বর্তমান দৈনিক ৪ হাজার থেকে সাড়ে ৪ হাজার এলপিজি সরবরাহ করা হচ্ছে। প্রতি ১২ কেজি সিলিন্ডারের মূল্য ৬০০/- টাকায় বিক্রি হচ্ছে। সচেতন মহলের দাবী এই দাম বৃদ্ধির সাথে বেসরকারি কোম্পানীর মধ্যস্বত্ব ও কমিশনভোগী ব্যবসায়ীরা সরাসরি জড়িত।

এই ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নির্বিকার কেন? দেশবাসী তা জানতে চায়। সরকারের ভেতরে থাকা দুর্নীতিবাজ চক্রকে এখনই দমন করার জোর দাবী জানিয়ে বলেন, এলপিজি গ্যাস ও সিলিন্ডারের দাম দ্রুত কমিয়ে আনার লক্ষ্যে যা যা গ্রহণ করা দরকার তা গ্রহণ করা জরুরী। অন্যথায় এলপিজি গ্যাস গ্রাহকদের নিয়ে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। ইনশাআল্লাহ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ