মহানগর যুবদল নেতা আব্দুল্লাহ শফি সাঈদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদ

প্রকাশিত: ৭:৩৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ৪, ২০২০

মহানগর যুবদল নেতা আব্দুল্লাহ শফি সাঈদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদ

অনলাইন ডেস্ক :; সম্প্রতি নগরীতে সাবেক ছাত্রদল নেতা আবু সালেহ মোঃ তাহের এর উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় তাকে জড়িয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালে অপপ্রচারের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন সিলেট মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আব্দুল্লাহ শফি সাহেদ। এই ঘটনায় তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার বন্ধ করা এবং সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত অপরাধীদের খুজে বের করার জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনীর প্রতি জোর দাবী জানান তিনি।
এক বিবৃতিতে আব্দুল্লাহ শফি সাহেদ বলেন, গত ১ জুলাই বুধবার বেলা ৪টার দিকে পীর মহল্লা এলাকায় হামলার শিকার হন মহানগর ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আবু সালেহ মোঃ তাহের। এই ঘটনায় আমাকে জড়িয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও বিভিন্ন অনলাইন নিউজপোর্টালে অপপ্রচার চালানো হয়েছে। যা উদ্দেশ্যপ্রনোদিত ও ব্যক্তিগত প্রতিহিংসার বহি:প্রকাশ। আমার জানামতে আমাদের এলাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাইস্থ কলবাখানি এলাকার একটি জায়গা নিয়ে এটিএম আহমেদ টি এন্ড ল্যান্ডস বনাম শামীম সিদ্দিকীর মধ্যে দীর্ঘদিন থেকে ঝামেলা জলছে। এই জায়গা নিয়ে দুটি পক্ষের মধ্যে তর্ক-বিতর্ক হয়েছে বলেও আমি শুনেছি। কিন্তু এসবের সাথে আমাকে জড়িয়ে একটি কুচক্রীমহল রাজনৈতিক ফায়দা হাসিল করতে চায়। কারণ সেদিনের ঘটনাস্থলে আমার যেমন উপস্থিতি ছিলনা তেমনী এর সাথে আমার ন্যুনতম কোন সম্পর্কও নেই। সাবেক ছাত্রদল নেতা আবু তাহেরের সাথে আমার ব্যক্তিগত কোন বিরোধও নেই বরং সুসম্পর্ক রয়েছে। এছাড়া সম্প্রতি করোনাক্রান্ত হয়ে আমার এক ফুফু ইন্তেকাল করেছেন। আর বর্তমানে আমাদের পরিবারের ৭/৮ জন সদস্য করোনা পজিটিভ থাকায় বাসায় আইসোলেশন ও হোম কোয়ারেন্টেইনে আছেন। এমনকি আমি নিজেও ৭ দিন যাবত হোম কোয়ারেন্টেইনে আছি। আমাকে আরো ৭ দিন হোম কোয়ারেন্টেইনে থাকতে হবে। ১৪ দিন পর কোয়ারেন্টেইন শেষ হলে আমি বাসা থেকে বেরুতে পারবো। এর আগি আমায় বাসায়ই অবস্থান করছি। অথচ তাহেরের উপর হামলার সাথে আমাকে জড়িয়ে যা লেখালেখি হচ্ছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। আমাকে মাদক ব্যবসায়ীও বলা হচ্ছে। অথচ থানায় যোগাযোগ করলে জানা যাবে কারা মাদকসেবী এবং ছিনতাইকারী।ক কারণ একাধিক বার মাদক সেবন ও ছিনতাইয়ের অভিযোগে কারা কারা গ্রেফতার হয়েছিলেন তার প্রমাণ বিমানবন্দর থানায় যোগাযোগ করলেই জানা যাবে। আমি শহীদ জিয়ার আদর্শের বিএনপি করি। বিএনপিতে পদ পদবী নিয়ে রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্ধিতা থাকাটা স্বাভাবিক । কিন্তু রাজনৈতিক প্রতিহিংসার বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের সামাজিকভাবে হেয় করা কোন প্রকৃত জিয়ার সৈনিকের কাজ হতে পারেনা। তাহেরের উপর হামলাকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যেসব মিথ্যাচারমুলক ভিডিও প্রচার করা হচ্ছে। আমি এসবের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। একই সাথে দলীয় নেতাকর্মীদের এব্যাপারে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ